রামগঞ্জে বিয়ের প্রলোভনে কলেজছাত্রীকে ধর্ষন

আবু তাহের,রামগঞ্জ ঃ
লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে আঁখি আক্তার নামে এক কলেজ ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষন করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার ৭নং দরবেশপুর ইউনিয়ননের মধ্যদরবেশপুর গ্রামে। সৃষ্ট ঘটনায় আজ সোমবার (২০ এপ্রিল) ধর্ষিতা বাদী হয়ে রামগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মধ্য দরবেশপুর নোয়া বাড়ির মৃত আঃ রশিদের বখাটে ছেলে আরিফ হাসানকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছে। রামগঞ্জ থানা পুলিশ ধর্ষিতাকে ডাক্তারী পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য ল²ীপুর সদর হাসপাতালে প্রেরন করেছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার পূর্ব দরবেশপুর গ্রামের লক্ষীপুর সরকারী কলেজের অনার্স ৩য় বর্ষের ছাত্রীর সাথে মধ্য দরবেশপুর নোয়া বাড়ির মৃত আঃ রশিদের বখাটে ছেলে কাতার প্রবাসী আরিফ হাসানের সাথে ২০১৬ইং সন থেকে মোবাইলে প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিলো। এরই মধ্যে আরিফ হাসান গত ২৩ ফেব্রæয়ারী ২০২০ইং সনে বাংলাদেশে আসে। আসার পর থেকে বিভিন্ন সময় আরিফ হাসান কলেজছাত্রীকে শাররিকভাকে মেলামেশা করার জন্য চাপ সৃষ্টি করে। কিন্তু কলেজ ছাত্রী বারবার তা প্রত্যাক্ষান করে বিয়ের জন্য চাপ সৃষ্টি করে। এরই মধ্যে গত ৮মার্চ আরিফ বিয়ের করার কথা বলে ওই ছাত্রীকে চাঁদপুর হয়ে লঞ্চ যোগে ঢাকার কমলাপুরে সিটি প্যালেস হোটেলে নিয়ে যায়। এরমধ্যে লঞ্চে ও হোটেলে দফায় দফায় জোরপূর্বক ধর্ষন করে। কিন্তু ৯মার্চ সকালে বিয়ে করার কথা থাকলেও আরিফ হাসান তাকে বিয়ে না করে সোজা সায়েদাবাদ বাস কাউন্টারে এনে জোরর্পূক গাড়িতে তুলে দিয়ে দেশের বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। পরে ওই ছাত্রী বাড়িতে এসে এলাকার লোকজনদের জানায়। এক পর্যায়ে স্থানীয় শালিশ রহমত উল্যা, মামুন মাষ্টার, আবুলশ কাশেম, জহির,আরমান,জসিম সহ ১ এপ্রিল থেকে ১৭ এপ্রিল পর্যন্ত দফায় দফায় শালিশীর বৈঠকের নাম করে কালক্ষেপন করে ধর্ষকের জরিমানা করে চেড়ে দেওয়ার দিদ্ধান্ত দিলে কলেজছাত্রী তা প্রত্যাক্ষান করেন।
ধর্ষিতা কলেজছাত্রী বলেন, শিক্ষিত মেয়ে হিসেবে আমি সবসময় সতর্ক ছিলাম। কিন্তুলঞ্জে উঠার পর সে আমার সাথে ধস্তাধস্তি শুরু করে বলে সদরঘাট নেমেই বিয়ের কাজ সেরে ফেলার কথা বলে কয়েকবার শাররিক মেলামেশা করে। সদরঘাট গিয়ে বলে হোটেলে উঠে তারপর বিয়ে করবে। এভাবে আরিফ যে আমার সাথে বারবার এমন প্রতারনা করবে তা কখনো ভাবিনি। এছাড়াও শালিশরা বিয়ে পড়ানো সহ সমাধানের কথা বলে বারবার কালক্ষেপন করে আমাকে তাৎক্ষনিক চেকআপের জন্য হাসপাতাল পর্যন্ত যেতে দেয়নি।
অভিযুক্ত ধর্ষক আরিফ হাসান মোবাইলে বারবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।
রামগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন জানান, কলেজ ছাত্রীর অভিযোগের আলোকে নারী শিশু নির্যাতন আইনে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Share Button

সর্বশেষ আপডেট



» করোনা উপসর্গে চাটখিল ও বেগমগঞ্জে ২ জনের মৃত্যু

» দক্ষিণ আফ্রিকায় ছিনতাইকারীর হাতে বাংলাদেশী নিহত

» রামগঞ্জে শিশু সন্তান নিয়ে পালিয়েছে প্রবাসীর স্ত্রী

» চাটখিলের সন্তান বাঁধনের জিপিএ ফাইভ অর্জন

» নারীর লাশ ঝুলছে, সন্তানের পানিতে,স্বামী পলাতক

» সোনাইমুড়ী প্রেসক্লাবের নুতন সভাপতি খোরশেদ আলম সাধারণ সম্পাদক বেলাল হোছাইন ভূঁইয়া

» করোনা দুর্যোগে নোয়াখালীর ৩০ হাজার মানুষের পাশে প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী জাহাঙ্গীর আলম

» বেগমগঞ্জে ঈদের রাতে আ,লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ সহ আহত ৯ গ্রেফতার ৩

» নোয়াখালী সিভিল সার্জন অফিসের ফেসবুক আইডি হ্যাক

» চাটখিলে বাবার বাড়ী থেকে ১ সন্তানের জননীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

ফেইসবুকে প্রিয় নোয়াখালী

সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]
Desing & Developed BY Trust soft bd
,

রামগঞ্জে বিয়ের প্রলোভনে কলেজছাত্রীকে ধর্ষন

আবু তাহের,রামগঞ্জ ঃ
লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে আঁখি আক্তার নামে এক কলেজ ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষন করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার ৭নং দরবেশপুর ইউনিয়ননের মধ্যদরবেশপুর গ্রামে। সৃষ্ট ঘটনায় আজ সোমবার (২০ এপ্রিল) ধর্ষিতা বাদী হয়ে রামগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মধ্য দরবেশপুর নোয়া বাড়ির মৃত আঃ রশিদের বখাটে ছেলে আরিফ হাসানকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছে। রামগঞ্জ থানা পুলিশ ধর্ষিতাকে ডাক্তারী পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য ল²ীপুর সদর হাসপাতালে প্রেরন করেছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার পূর্ব দরবেশপুর গ্রামের লক্ষীপুর সরকারী কলেজের অনার্স ৩য় বর্ষের ছাত্রীর সাথে মধ্য দরবেশপুর নোয়া বাড়ির মৃত আঃ রশিদের বখাটে ছেলে কাতার প্রবাসী আরিফ হাসানের সাথে ২০১৬ইং সন থেকে মোবাইলে প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিলো। এরই মধ্যে আরিফ হাসান গত ২৩ ফেব্রæয়ারী ২০২০ইং সনে বাংলাদেশে আসে। আসার পর থেকে বিভিন্ন সময় আরিফ হাসান কলেজছাত্রীকে শাররিকভাকে মেলামেশা করার জন্য চাপ সৃষ্টি করে। কিন্তু কলেজ ছাত্রী বারবার তা প্রত্যাক্ষান করে বিয়ের জন্য চাপ সৃষ্টি করে। এরই মধ্যে গত ৮মার্চ আরিফ বিয়ের করার কথা বলে ওই ছাত্রীকে চাঁদপুর হয়ে লঞ্চ যোগে ঢাকার কমলাপুরে সিটি প্যালেস হোটেলে নিয়ে যায়। এরমধ্যে লঞ্চে ও হোটেলে দফায় দফায় জোরপূর্বক ধর্ষন করে। কিন্তু ৯মার্চ সকালে বিয়ে করার কথা থাকলেও আরিফ হাসান তাকে বিয়ে না করে সোজা সায়েদাবাদ বাস কাউন্টারে এনে জোরর্পূক গাড়িতে তুলে দিয়ে দেশের বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। পরে ওই ছাত্রী বাড়িতে এসে এলাকার লোকজনদের জানায়। এক পর্যায়ে স্থানীয় শালিশ রহমত উল্যা, মামুন মাষ্টার, আবুলশ কাশেম, জহির,আরমান,জসিম সহ ১ এপ্রিল থেকে ১৭ এপ্রিল পর্যন্ত দফায় দফায় শালিশীর বৈঠকের নাম করে কালক্ষেপন করে ধর্ষকের জরিমানা করে চেড়ে দেওয়ার দিদ্ধান্ত দিলে কলেজছাত্রী তা প্রত্যাক্ষান করেন।
ধর্ষিতা কলেজছাত্রী বলেন, শিক্ষিত মেয়ে হিসেবে আমি সবসময় সতর্ক ছিলাম। কিন্তুলঞ্জে উঠার পর সে আমার সাথে ধস্তাধস্তি শুরু করে বলে সদরঘাট নেমেই বিয়ের কাজ সেরে ফেলার কথা বলে কয়েকবার শাররিক মেলামেশা করে। সদরঘাট গিয়ে বলে হোটেলে উঠে তারপর বিয়ে করবে। এভাবে আরিফ যে আমার সাথে বারবার এমন প্রতারনা করবে তা কখনো ভাবিনি। এছাড়াও শালিশরা বিয়ে পড়ানো সহ সমাধানের কথা বলে বারবার কালক্ষেপন করে আমাকে তাৎক্ষনিক চেকআপের জন্য হাসপাতাল পর্যন্ত যেতে দেয়নি।
অভিযুক্ত ধর্ষক আরিফ হাসান মোবাইলে বারবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।
রামগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন জানান, কলেজ ছাত্রীর অভিযোগের আলোকে নারী শিশু নির্যাতন আইনে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



web-ad

সর্বশেষ আপডেট





সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]

Developed BY Trustsoftbd