নোয়াখালী সদরে ত্রানের চালের জন্য ইউপি কার্যালয় ঘেরাও, চেয়ারম্যানের অনুসারীদের সাথে সংঘর্ষ, আহত ৭

 

আকবর হোসেন সোহাগঃ

নোয়াখালীতে জেলেদের চালের জন্য অশ্বদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয় ঘেরাও করতে গেলে চেয়ারম্যানের অনুসারীদের সাথে তাদের সংঘর্ষ ও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এ সময় অন্তত ৭ জেলে আহত হয়।

সোমবার দুপুরে সদর উপজেলার অশ্বদিয়া ইউনিয়নে এই ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, অশ্বদিয়া ইউনিয়নে ১৬০ জন জেলের জন্য ভিজিএফ কর্মসূচির আওতায় মাসে ৪০ কেজি করে দুই মাসের ৮০কেজি চাল বরাদ্দ দেওয়া হয়। কিন্তু জেলেরা তাদের ফেব্রæয়ারি ও মার্চ মাসের বরাদ্দ না পেয়ে সোমবার দুপুরে ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালল ঘেরাও করে। এ সময় ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম হোসেন বাবলু পরিষদ থেকে বের হলে চালের জন্য তাকে ঘিরে ধরেন জেলেরা। এক পর্যায়ে চেয়ারম্যানের অনসুসারীরা জেলেদেরকে ধাওয়া করলে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ ও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এতে ৭ জেলে আহতন হন। আহতদের মধ্যে জবিউল্লা(৫৩), সালাউদ্দিন(৬০), সহিদ উল্লা(৪৫), হারুন(৩২), কহিনুর (২৮), সেলিম(৪০) ও কতবানুকে(৬৫) স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

খবর পেয়ে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুল ইসলাম সরদার, সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কাজী মোঃ আবদুর রহিম অতিরিক্ত পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কাজী মোঃ আবদুর রহিম জানান, চালের জন্য জেলেরা ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়েছে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। পুলিশ যাওয়ার আগে কিছু অপ্রীতিকর পরিস্থিতি সৃস্টি হলেও পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এ ব্যপারে সরদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুল ইসলাম সরদার জানান, জেলের জন্য বরাদ্দকৃত দুই মাসের চাল উত্তোলনে বিলম্বের কারণে যথা সময়ে বিলি করা যায়নি। যার কারণে জেলেদের মধ্যে ক্ষোভের সঞ্চার হয়। উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার উপস্থিতিতে দ্রæত চাল বন্টনের আশ্বাসের প্রেক্ষিতে জেলেরা শান্ত হন।

এ ব্যপারে অশ্বদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম হোসেন বাবলু জানান, জেলেরা কোন কিছু না বুঝেই ইউনিয়ন পরিষদের সামনে বিশৃঙ্খা সৃস্টি করে। তাদের জন্য বরাদ্দকৃত চাল যথা সময়ে তাদের মাঝে বন্টন করা হবে।

২০.০৪.২০২০

Share Button

সর্বশেষ আপডেট



» করোনা উপসর্গে চাটখিলে স্বামী স্ত্রী ও বেগমগঞ্জে ১ জনের মৃত্যু

» দক্ষিণ আফ্রিকায় ছিনতাইকারীর হাতে বাংলাদেশী নিহত

» রামগঞ্জে শিশু সন্তান নিয়ে পালিয়েছে প্রবাসীর স্ত্রী

» চাটখিলের সন্তান বাঁধনের জিপিএ ফাইভ অর্জন

» নারীর লাশ ঝুলছে, সন্তানের পানিতে,স্বামী পলাতক

» সোনাইমুড়ী প্রেসক্লাবের নুতন সভাপতি খোরশেদ আলম সাধারণ সম্পাদক বেলাল হোছাইন ভূঁইয়া

» করোনা দুর্যোগে নোয়াখালীর ৩০ হাজার মানুষের পাশে প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী জাহাঙ্গীর আলম

» বেগমগঞ্জে ঈদের রাতে আ,লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ সহ আহত ৯ গ্রেফতার ৩

» নোয়াখালী সিভিল সার্জন অফিসের ফেসবুক আইডি হ্যাক

» চাটখিলে বাবার বাড়ী থেকে ১ সন্তানের জননীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

ফেইসবুকে প্রিয় নোয়াখালী

সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]
Desing & Developed BY Trust soft bd
,

নোয়াখালী সদরে ত্রানের চালের জন্য ইউপি কার্যালয় ঘেরাও, চেয়ারম্যানের অনুসারীদের সাথে সংঘর্ষ, আহত ৭

 

আকবর হোসেন সোহাগঃ

নোয়াখালীতে জেলেদের চালের জন্য অশ্বদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয় ঘেরাও করতে গেলে চেয়ারম্যানের অনুসারীদের সাথে তাদের সংঘর্ষ ও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এ সময় অন্তত ৭ জেলে আহত হয়।

সোমবার দুপুরে সদর উপজেলার অশ্বদিয়া ইউনিয়নে এই ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, অশ্বদিয়া ইউনিয়নে ১৬০ জন জেলের জন্য ভিজিএফ কর্মসূচির আওতায় মাসে ৪০ কেজি করে দুই মাসের ৮০কেজি চাল বরাদ্দ দেওয়া হয়। কিন্তু জেলেরা তাদের ফেব্রæয়ারি ও মার্চ মাসের বরাদ্দ না পেয়ে সোমবার দুপুরে ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালল ঘেরাও করে। এ সময় ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম হোসেন বাবলু পরিষদ থেকে বের হলে চালের জন্য তাকে ঘিরে ধরেন জেলেরা। এক পর্যায়ে চেয়ারম্যানের অনসুসারীরা জেলেদেরকে ধাওয়া করলে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ ও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এতে ৭ জেলে আহতন হন। আহতদের মধ্যে জবিউল্লা(৫৩), সালাউদ্দিন(৬০), সহিদ উল্লা(৪৫), হারুন(৩২), কহিনুর (২৮), সেলিম(৪০) ও কতবানুকে(৬৫) স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

খবর পেয়ে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুল ইসলাম সরদার, সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কাজী মোঃ আবদুর রহিম অতিরিক্ত পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কাজী মোঃ আবদুর রহিম জানান, চালের জন্য জেলেরা ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়েছে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। পুলিশ যাওয়ার আগে কিছু অপ্রীতিকর পরিস্থিতি সৃস্টি হলেও পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এ ব্যপারে সরদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুল ইসলাম সরদার জানান, জেলের জন্য বরাদ্দকৃত দুই মাসের চাল উত্তোলনে বিলম্বের কারণে যথা সময়ে বিলি করা যায়নি। যার কারণে জেলেদের মধ্যে ক্ষোভের সঞ্চার হয়। উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার উপস্থিতিতে দ্রæত চাল বন্টনের আশ্বাসের প্রেক্ষিতে জেলেরা শান্ত হন।

এ ব্যপারে অশ্বদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম হোসেন বাবলু জানান, জেলেরা কোন কিছু না বুঝেই ইউনিয়ন পরিষদের সামনে বিশৃঙ্খা সৃস্টি করে। তাদের জন্য বরাদ্দকৃত চাল যথা সময়ে তাদের মাঝে বন্টন করা হবে।

২০.০৪.২০২০

Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



web-ad

সর্বশেষ আপডেট





সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]

Developed BY Trustsoftbd