সৌদি আরবে ২২ লক্ষ প্রবাসী পড়েছেন অর্থনৈতিক সংকটে

সোহেল রানা, সৌদি আরব থেকেঃ

সৌদি আরব বাংলাদেশের সব চাইতে বড় শ্রম বাজার, জীবন ও জীবিকার তাগিদে লক্ষ লক্ষ বাংলাদেশী এখানে বসবাস করেন, করোনা ভাইরাসের কারণে বিশ্ব এখন বিপর্যয়ে পড়েছে। এটি এখন বিশ্বে মহামারীতে রূপ নিয়েছে, সৌদি আরবে ও তার প্রভাব পড়েছে, করোনা মোকাবেলায় সৌদি সরকার নানা রকম পদক্ষেপ হাতে নিয়েছে। ইতি মধ্যেই সৌদি আরবের প্রত্যেকটি শহরে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছ।
করোনা পরিস্থিতির অবনতি ঘটলে লকডাউন এর পাশাপাশি কারফিউ জারি করা হয়। কারফিউ ভঙ্গ করলে ১০ হাজার রিয়াল জরিমানা ঘোষণা দেয়া হয়। শুধু ঘোষণা দিয়ে খান্ত থাকেনি, কারফিউ ভঙ্গ কারি কে ইতিমধ্যে ১০ হাজার রিয়াল জরিমানা দেয়া হচ্ছে। যার কারণে প্রতিটি মানুষ এখানে আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তবে শর্ত সাপেক্ষে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয় করার জন্য বাগালা, ফার্মেসি, হসপিটাল ও ব্যাংকিং সেবা সহ ইমারজেন্সি প্রতিষ্ঠান গুলো খোলা রয়েছে। দীর্ঘদিন কারফিউ থাকার কারণে সৌদি আরবে অবস্থানরত প্রবাসী বাঙালিরা মানবেতর জীবন যাপন করছে।
চাকরি ও কাজ না থাকার কারণে পড়েছেন অর্থ সঙ্কটে। ইতোমধ্যেই বাংলাদেশ সরকার ৮০ লক্ষ টাকার প্রণোদনা সৌদি আরবে বাঙালিদের জন্য পাঠিয়েছে। বাংলাদেশ দূতাবাস রিয়াদ ও কনস্যুলেট জেনারেল জেদ্দার কর্মকর্তা ও কর্মচারী বৃন্দ প্রবাসীদের ঘরে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া উপহার সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছেন। তবে এই উপহার সামগ্রী প্রয়োজনের তুলনায় খুবই সামান্য। এখানে অবস্থানরত এই বিশাল জনগোষ্ঠীর জন্য আরও বড় অংকের বাজেট প্রয়োজন বলে মনে করেন প্রবাসীরা।
প্রবাসীরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দিকে তাকিয়ে আছেন,যদি বাজেট বৃদ্ধি করা না হয় তাহলে এখানে মানবিক বিপর্যয় ঘটবে। করোণায় আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত ৩৫ জন বাঙালি নিহত হয়েছেন তথ্যসূত্রে-বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল জেদ্দা। গত মার্চ থেকে এখন পর্যন্ত ১৩৪ জন বাঙালি স্ট্রোক করে মৃত্যু বরণ করেছেন যা করোনায় আক্রান্তের চাইতে চার গুণের বেশি। ধারণা করা হচ্ছে নিজের অর্থনৈতিক সংকটে আগামী দিনগুলো কিভাবে চলবে এবং বাংলাদেশে পরিবার পরিজনদের অর্থনৈতিক যোগান দিতে না পেরে তাদের এই পরিণতি হয়েছে যা ভবিষ্যতে আরো বাড়বে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

নিউজ ক্রেডিট: ভযেস বাংলা।

Share Button

সর্বশেষ আপডেট



» চাটখিলের সন্তান বাঁধনের জিপিএ ফাইভ অর্জন

» নারীর লাশ ঝুলছে, সন্তানের পানিতে,স্বামী পলাতক

» সোনাইমুড়ী প্রেসক্লাবের নুতন সভাপতি খোরশেদ আলম সাধারণ সম্পাদক বেলাল হোছাইন ভূঁইয়া

» করোনা দুর্যোগে নোয়াখালীর ৩০ হাজার মানুষের পাশে প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী জাহাঙ্গীর আলম

» বেগমগঞ্জে ঈদের রাতে আ,লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ সহ আহত ৯ গ্রেফতার ৩

» নোয়াখালী সিভিল সার্জন অফিসের ফেসবুক আইডি হ্যাক

» চাটখিলে বাবার বাড়ী থেকে ১ সন্তানের জননীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

» করোনা উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তির কয়েক ঘন্টা পরে মারা গেলেন বেগমগঞ্জের একজন

» স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘উইফরইউ পাঠশালা’র ১২০ শিক্ষার্থী পেল ঈদ উপহার ও নগদ অর্থ

» নোয়াখালীতে নুতন আক্রান্ত ৭৭, চাটখিল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জরুরী বিভাগ বাদে সব বন্ধ

ফেইসবুকে প্রিয় নোয়াখালী

সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]
Desing & Developed BY Trust soft bd
,

সৌদি আরবে ২২ লক্ষ প্রবাসী পড়েছেন অর্থনৈতিক সংকটে

সোহেল রানা, সৌদি আরব থেকেঃ

সৌদি আরব বাংলাদেশের সব চাইতে বড় শ্রম বাজার, জীবন ও জীবিকার তাগিদে লক্ষ লক্ষ বাংলাদেশী এখানে বসবাস করেন, করোনা ভাইরাসের কারণে বিশ্ব এখন বিপর্যয়ে পড়েছে। এটি এখন বিশ্বে মহামারীতে রূপ নিয়েছে, সৌদি আরবে ও তার প্রভাব পড়েছে, করোনা মোকাবেলায় সৌদি সরকার নানা রকম পদক্ষেপ হাতে নিয়েছে। ইতি মধ্যেই সৌদি আরবের প্রত্যেকটি শহরে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছ।
করোনা পরিস্থিতির অবনতি ঘটলে লকডাউন এর পাশাপাশি কারফিউ জারি করা হয়। কারফিউ ভঙ্গ করলে ১০ হাজার রিয়াল জরিমানা ঘোষণা দেয়া হয়। শুধু ঘোষণা দিয়ে খান্ত থাকেনি, কারফিউ ভঙ্গ কারি কে ইতিমধ্যে ১০ হাজার রিয়াল জরিমানা দেয়া হচ্ছে। যার কারণে প্রতিটি মানুষ এখানে আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তবে শর্ত সাপেক্ষে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয় করার জন্য বাগালা, ফার্মেসি, হসপিটাল ও ব্যাংকিং সেবা সহ ইমারজেন্সি প্রতিষ্ঠান গুলো খোলা রয়েছে। দীর্ঘদিন কারফিউ থাকার কারণে সৌদি আরবে অবস্থানরত প্রবাসী বাঙালিরা মানবেতর জীবন যাপন করছে।
চাকরি ও কাজ না থাকার কারণে পড়েছেন অর্থ সঙ্কটে। ইতোমধ্যেই বাংলাদেশ সরকার ৮০ লক্ষ টাকার প্রণোদনা সৌদি আরবে বাঙালিদের জন্য পাঠিয়েছে। বাংলাদেশ দূতাবাস রিয়াদ ও কনস্যুলেট জেনারেল জেদ্দার কর্মকর্তা ও কর্মচারী বৃন্দ প্রবাসীদের ঘরে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া উপহার সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছেন। তবে এই উপহার সামগ্রী প্রয়োজনের তুলনায় খুবই সামান্য। এখানে অবস্থানরত এই বিশাল জনগোষ্ঠীর জন্য আরও বড় অংকের বাজেট প্রয়োজন বলে মনে করেন প্রবাসীরা।
প্রবাসীরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দিকে তাকিয়ে আছেন,যদি বাজেট বৃদ্ধি করা না হয় তাহলে এখানে মানবিক বিপর্যয় ঘটবে। করোণায় আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত ৩৫ জন বাঙালি নিহত হয়েছেন তথ্যসূত্রে-বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল জেদ্দা। গত মার্চ থেকে এখন পর্যন্ত ১৩৪ জন বাঙালি স্ট্রোক করে মৃত্যু বরণ করেছেন যা করোনায় আক্রান্তের চাইতে চার গুণের বেশি। ধারণা করা হচ্ছে নিজের অর্থনৈতিক সংকটে আগামী দিনগুলো কিভাবে চলবে এবং বাংলাদেশে পরিবার পরিজনদের অর্থনৈতিক যোগান দিতে না পেরে তাদের এই পরিণতি হয়েছে যা ভবিষ্যতে আরো বাড়বে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

নিউজ ক্রেডিট: ভযেস বাংলা।

Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



web-ad

সর্বশেষ আপডেট





সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]

Developed BY Trustsoftbd