করোনা উপসর্গে চাটখিলে স্বামী স্ত্রী ও বেগমগঞ্জে ১ জনের মৃত্যু

প্রিয় নোয়াখালী ডেস্কঃ

নোয়াখালীর চাটখিল ও বেগমগঞ্জ উপজেলায় করোনার উপসর্গ নিয়ে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। যার মধ্যে দুজন স্বামী-স্ত্রী। এদের মধ্যে একজনের নমুনা সংগ্রহ করতে পারলেও অপর দুজনের নমুনা নিতে পারেনি উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।
রবিবার রাতের বিভিন্ন সময় তাদের মৃত্যু হয়। মৃতদের মধ্যে দুজন চাটখিল পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ড ছয়ানি টগবা গ্রামের ও অপরজন বেগমগঞ্জ উপজেলার মিরওয়ারিশপুরের বাসিন্দা।
চাটখিল পৌরসভা ৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নওশাদুল করিম জানান, রবিবার রাতে করোনার উপসর্গ নিয়ে তার ওয়ার্ডে ৫৫ বছর বয়সী এক নারী মারা যান। এর আগে দিন শনিবার রাতে ওই নারীর স্বামী (৬০)ও মারা গেছেন।
চাটখিল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ও করোনা ফোকাল পার্সন ডা. মো. তামজিদ হোসাইন জানান, মৃত পুরুষ ওই ব্যক্তিদের পরিবারের লোকজন তথ্য গোপন করে তার লাশ দাফন করে। এর ২৪ ঘণ্টা পর তার স্ত্রী বাড়িতে অসুস্থ হয়ে পড়লে রবিবার সন্ধ্যায় চাটখিল পৌর শহরের একটি প্রাইভেট হাসপাতালে নিয়ে যায় পরিবারের লোকজন। সেখানে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে রাতে বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়। রাত ১১টার সময় নিজ বাড়িতে তিনি মারা যান। খবর পেয়ে মৃত নারীর শরীর থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এছাড়াও তাদের পরিবারের ৮ সদস্যের নমুনা সংগ্রহ করা হবে।
এদিকে রবিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে জেলার বেগমগঞ্জ উপজেলার মিরওয়ারিশপুর ইউনিয়নে ৭০ বছর বয়সী এক ব্যক্তি নিজ বাড়িতে মারা যান। জ্বর ও শ্বাসকষ্টসহ তার শরীরে করোনা উপসর্গ ছিল। তবে স্বাস্থ্য বিভাগ তার নমুনা সংগ্রহ করতে পারেনি। ওই ব্যক্তির মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মিরওয়ারিশপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহাজাহান সাজু।
বেগমগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. অসীম কুমার দাস বলেন, মিরওয়ারিশপুরের ওই ব্যক্তির মৃত্যুর বিষয়ে কেউ তাকে জানায়নি। তাই মৃত ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করা সম্ভব হয়নি। করোনা উপসর্গ থাকলে খবর নিয়ে তার সংস্পর্শে আসা লোকজনের নমুনা সংগ্রহ করা হবে।

Share Button

সর্বশেষ আপডেট



» দক্ষিণ আফ্রিকায় সন্ত্রাসীর গুলিতে নোয়াখালীর কামরুল খুন

» লক্ষ্মীপুরে মেয়ে হত্যার অভিযোগে আটক কারাবন্দি বাবার মৃত্যু

» কবিরহাটে বসত ঘরে ঢুকে হাত পা বেঁধে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ

» আইসিইউতে রাখার নামে হাত-পা বেঁধে নোয়াখালীর শিশু নাদিয়াকে হত্যার অভিযোগ বাবার

» শ্রদ্ধা ও ভালবাসায় চাটখিলে মরহুম মহাম্মদ আলী তরফদারের মৃত্যু বার্ষিকী পালিত

» নোয়াখালীতে করোনায় পুলিশসহ দুই জনের মৃত্যু

» চাটখিল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসোলেশন সেন্টার থেকে প্রথমেই সুস্থ্য হয়ে ফিরলেন ৩ পুলিশ সদস্য

» রামগঞ্জে কাজ না করে ১৭ লক্ষ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে

» ছাত্রলীগ সভাপতিসহ নোয়াখালীতে আক্রান্ত আরও ৪২

» নোয়াখালীতে গুলিবিদ্ধ সেই ইউপি সদস্যের মৃত্যু

ফেইসবুকে প্রিয় নোয়াখালী

সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]
Desing & Developed BY Trust soft bd
,

করোনা উপসর্গে চাটখিলে স্বামী স্ত্রী ও বেগমগঞ্জে ১ জনের মৃত্যু

প্রিয় নোয়াখালী ডেস্কঃ

নোয়াখালীর চাটখিল ও বেগমগঞ্জ উপজেলায় করোনার উপসর্গ নিয়ে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। যার মধ্যে দুজন স্বামী-স্ত্রী। এদের মধ্যে একজনের নমুনা সংগ্রহ করতে পারলেও অপর দুজনের নমুনা নিতে পারেনি উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।
রবিবার রাতের বিভিন্ন সময় তাদের মৃত্যু হয়। মৃতদের মধ্যে দুজন চাটখিল পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ড ছয়ানি টগবা গ্রামের ও অপরজন বেগমগঞ্জ উপজেলার মিরওয়ারিশপুরের বাসিন্দা।
চাটখিল পৌরসভা ৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নওশাদুল করিম জানান, রবিবার রাতে করোনার উপসর্গ নিয়ে তার ওয়ার্ডে ৫৫ বছর বয়সী এক নারী মারা যান। এর আগে দিন শনিবার রাতে ওই নারীর স্বামী (৬০)ও মারা গেছেন।
চাটখিল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ও করোনা ফোকাল পার্সন ডা. মো. তামজিদ হোসাইন জানান, মৃত পুরুষ ওই ব্যক্তিদের পরিবারের লোকজন তথ্য গোপন করে তার লাশ দাফন করে। এর ২৪ ঘণ্টা পর তার স্ত্রী বাড়িতে অসুস্থ হয়ে পড়লে রবিবার সন্ধ্যায় চাটখিল পৌর শহরের একটি প্রাইভেট হাসপাতালে নিয়ে যায় পরিবারের লোকজন। সেখানে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে রাতে বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়। রাত ১১টার সময় নিজ বাড়িতে তিনি মারা যান। খবর পেয়ে মৃত নারীর শরীর থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এছাড়াও তাদের পরিবারের ৮ সদস্যের নমুনা সংগ্রহ করা হবে।
এদিকে রবিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে জেলার বেগমগঞ্জ উপজেলার মিরওয়ারিশপুর ইউনিয়নে ৭০ বছর বয়সী এক ব্যক্তি নিজ বাড়িতে মারা যান। জ্বর ও শ্বাসকষ্টসহ তার শরীরে করোনা উপসর্গ ছিল। তবে স্বাস্থ্য বিভাগ তার নমুনা সংগ্রহ করতে পারেনি। ওই ব্যক্তির মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মিরওয়ারিশপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহাজাহান সাজু।
বেগমগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. অসীম কুমার দাস বলেন, মিরওয়ারিশপুরের ওই ব্যক্তির মৃত্যুর বিষয়ে কেউ তাকে জানায়নি। তাই মৃত ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করা সম্ভব হয়নি। করোনা উপসর্গ থাকলে খবর নিয়ে তার সংস্পর্শে আসা লোকজনের নমুনা সংগ্রহ করা হবে।

Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



web-ad

সর্বশেষ আপডেট





সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]

Developed BY Trustsoftbd