সুবর্ণচরে ১৬ ঘন্টা পর নিখোঁজ শিশুর মরদেহ উদ্ধার

 

গিয়াস উদ্দিন রনিঃ

নোয়াখালীর সুবর্ণচর উজেলার চর আমান উল্যাহপুর ইউনিয়নে সাঁকো থেকে খালের পানিতে পড়ে ডুবে নিখোঁজ হওয়া শিশু আল আমিন হোসেন (৪)’র মরদেহ ১৬ ঘন্টা পর উদ্ধার করা হয়েছে। পড়ে যাওয়ার স্থান থেকে আধা কিলোমিটার দূরে ভেসাল জাল থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। এরআগে রবিবার সকাল ১০টায় নিখোঁজের পর শিশুটিকে উদ্ধারে কাজ করেছিল সুবর্ণচর ও মাইজদী ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল।

সোমবার দুপুর ১২টার দিকে শিশুর লাশ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, সুবর্ণচর ফায়ার সার্ভিসের সাব অফিসার নূর নবী। নিহত আল আমিন হোসেন ওই গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, তাদের বাড়ীর পাশ্ববর্তী খালের পাশে খেতের মধ্যে একটি মাছের ঘের করে আব্দুর রহমান। রবিবার সকালে নিজের মাছের ঘেরে কাজ করছিল রহমান। সকাল ১০টার দিকে তার মেয়ে ফারহানা আক্তার রিয়া (৭) ও ছেলে আল আমিন হোসেন (৪) রহমানের কাজ দেখতে আসে। কিছুক্ষণ পর নাস্তা করার জন্য স্থানীয় দোকানে যায় রহমান। এরমধ্যে বৃষ্টি শুরু হলে আল আমিনকে নিয়ে খালের উপরে থাকা গাছের সাঁকো পার হয়ে বাড়ী যাচ্ছিল রিয়া। এসময় পা পিচলে তারা দুইজন খালের পানিতে পড়ে ডুবে যায়। সাঁতার দিয়ে রিয়া পাড়ে উঠে আসতে পারলেও নিখোঁজ হয় আল আমিন। খবর পেয়ে প্রথমে সুবর্ণচর ও পরে মাইজদী ফায়ার সার্ভিসের সদস্য এবং ডুবরি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে আল আমিনকে উদ্ধারের জন্য চেষ্টা চালিয়েও কোন সন্ধান পায়নি। পরে রাত দেড়টার দিকে ওই খালের ভিতরের একটি ভেয়াল জালের মধ্যে আল আমিনের লাশ আটকা পড়লে স্থানীয়রা উদ্ধার করে।

সুবর্ণচর ফায়ার সার্ভিসের সাব অফিসার নূর নবী জানান, নিখোঁজের পর থেকে সুবর্ণচর ও মাইজদী ফায়ার সার্ভিসের দু’টি ইউনিট ও ডুবরি দলের সদস্যরা উদ্ধারের চেষ্টা করছে। রাত ১০টার দিকে আমরা উদ্ধার অভিযান শেষ করি। কিন্তু তখন পর্যন্ত শিশুটির কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। সোমবার সকালে স্থানীয় চর আমান উল্যাহ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রাতে শিশুটিকে পাওয়া গেছে বলে আমাকে মোবাইলে নিশ্চিত করেছেন।

Share Button

সর্বশেষ আপডেট



» হাতিয়ায় বোনকে গলা টিপে হত্যা করল ভাই

» সোনাইমুড়ীর জয়াগে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে তরুন গ্রাফিক্স ডিজাইনারের মৃত্যু

» বেগমগঞ্জে গোসল নিয়ে দ্বন্ধে যুবককে হত্যা, আটক ৫

» সোনাইমুড়ীতে পারিবারিক বিরোধে অবরুদ্ধ এক পরিবারের মানবেতর জীবন-যাপন

» করোনায় দক্ষিণ আফ্রিকায় বেগমগঞ্জের যুবকের মৃত্যু

» ইসলামিক ফোরাম অব আফ্রিকা ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত

» সুবর্ণচরে বয়স্ক ভাতার ঘুষ নিয়ে দ্বন্ধের জের ধরে কৃষককে কুপিয়ে হত্যা, আটক ৩

» সোনাইমুড়ীতে ধর্ষণের শিকার ছাত্রীর পরিবারকে এলাকা ছাড়ার হুমকি

» নোয়াখালীতে সুদের টাকার জন্য ব্যবসায়ীকে হত্যার অভিযোগ, লাশ নিয়ে বিক্ষোভ

» চাটখিলের খিলপাড়াতে ইসলামী ব্যাংকের ২য় শাখার কার্যক্রম শুরু

ফেইসবুকে প্রিয় নোয়াখালী

সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]
Desing & Developed BY Trust soft bd
,

সুবর্ণচরে ১৬ ঘন্টা পর নিখোঁজ শিশুর মরদেহ উদ্ধার

 

গিয়াস উদ্দিন রনিঃ

নোয়াখালীর সুবর্ণচর উজেলার চর আমান উল্যাহপুর ইউনিয়নে সাঁকো থেকে খালের পানিতে পড়ে ডুবে নিখোঁজ হওয়া শিশু আল আমিন হোসেন (৪)’র মরদেহ ১৬ ঘন্টা পর উদ্ধার করা হয়েছে। পড়ে যাওয়ার স্থান থেকে আধা কিলোমিটার দূরে ভেসাল জাল থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। এরআগে রবিবার সকাল ১০টায় নিখোঁজের পর শিশুটিকে উদ্ধারে কাজ করেছিল সুবর্ণচর ও মাইজদী ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল।

সোমবার দুপুর ১২টার দিকে শিশুর লাশ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, সুবর্ণচর ফায়ার সার্ভিসের সাব অফিসার নূর নবী। নিহত আল আমিন হোসেন ওই গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, তাদের বাড়ীর পাশ্ববর্তী খালের পাশে খেতের মধ্যে একটি মাছের ঘের করে আব্দুর রহমান। রবিবার সকালে নিজের মাছের ঘেরে কাজ করছিল রহমান। সকাল ১০টার দিকে তার মেয়ে ফারহানা আক্তার রিয়া (৭) ও ছেলে আল আমিন হোসেন (৪) রহমানের কাজ দেখতে আসে। কিছুক্ষণ পর নাস্তা করার জন্য স্থানীয় দোকানে যায় রহমান। এরমধ্যে বৃষ্টি শুরু হলে আল আমিনকে নিয়ে খালের উপরে থাকা গাছের সাঁকো পার হয়ে বাড়ী যাচ্ছিল রিয়া। এসময় পা পিচলে তারা দুইজন খালের পানিতে পড়ে ডুবে যায়। সাঁতার দিয়ে রিয়া পাড়ে উঠে আসতে পারলেও নিখোঁজ হয় আল আমিন। খবর পেয়ে প্রথমে সুবর্ণচর ও পরে মাইজদী ফায়ার সার্ভিসের সদস্য এবং ডুবরি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে আল আমিনকে উদ্ধারের জন্য চেষ্টা চালিয়েও কোন সন্ধান পায়নি। পরে রাত দেড়টার দিকে ওই খালের ভিতরের একটি ভেয়াল জালের মধ্যে আল আমিনের লাশ আটকা পড়লে স্থানীয়রা উদ্ধার করে।

সুবর্ণচর ফায়ার সার্ভিসের সাব অফিসার নূর নবী জানান, নিখোঁজের পর থেকে সুবর্ণচর ও মাইজদী ফায়ার সার্ভিসের দু’টি ইউনিট ও ডুবরি দলের সদস্যরা উদ্ধারের চেষ্টা করছে। রাত ১০টার দিকে আমরা উদ্ধার অভিযান শেষ করি। কিন্তু তখন পর্যন্ত শিশুটির কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। সোমবার সকালে স্থানীয় চর আমান উল্যাহ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রাতে শিশুটিকে পাওয়া গেছে বলে আমাকে মোবাইলে নিশ্চিত করেছেন।

Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



web-ad

সর্বশেষ আপডেট





সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]

Developed BY Trustsoftbd