রামগঞ্জে বিয়ে পাগল বাবা হত্যা করলো নিজ শিশু সন্তানকে

আবু তাহের ঃ
রামগঞ্জে ৩ মাস বয়সী পুত্রকে সুকৌশলে হত্যা করে ঘটনাটি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার পায়তারা করছেন বলেই অভিযোগ উঠেছে এক পাষন্ড পিতার বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার রাত সাড়ে বারটায় উপজেলার আথাকরা গ্রামের হাসিম ভূইঁয়া বাড়িতে। পুলিশ  শিশু সাইমুন মোবারককের লাশ উদ্বার করে লক্ষ্মীপুর জেলা হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।

একাধীক সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার বিকেলে শিশুটির পিতা বিয়ে পাগল ওমর ফারুক ঢাকা থেকে শ্বশুর বাড়িতে আসেন। স্যানেটাইজার বোতল মতই ওষধ নবজাতকের মুখে মেখে দেন। তখন থেকে নবজাতক কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। ঘটনাটি আভাস পেয়ে পাষান্ড পিতার শশুর বাড়ি থেকে না বলেই মুঠোফোন বন্ধ করে পালিয়ে যান। রাত দুইটা ৫০ মিনিটে নবজাতক মৃ্ত্যু হয়। সকালে পাষান্ড পিতা ঘটনাটি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার পায়তারা থানায় শশুর ও স্ত্রীর বিরুদ্ধে নালিশ করেন।
পাষান্ড পিতা ওমর ফারুক চাটখিল উপজেলার মনোহরপুর গ্রামের পাটোয়ারী বাড়ির আহসান উল্যাহর ছেলে । বর্তমানে সে ঢাকা রুপগঞ্জে বসবাস করেন। ওমর ফারুকের মামার বাড়ি ভাটরা মাইজপাড়া শেখের বাড়ি। মামার পরিচয় তিনি রামগঞ্জে সুকৌশলে দুইটি বিয়ে করেন। নবজাতকের মা আছমা আক্তার সহ তার আত্নীয় স্বজনরা জানান, ওমর ফারুক একজন নারী-লোভী, ভন্ড ও প্রতারক। তিঁনি লক্ষ্মীপুর যৌতুকের মামলায় জামিন পেয়ে আমাকে দেড় বছর আগে বিয়ে করেন। আসমাকে বিয়ে করার আগে তার ওই বিয়ে গুলোর বিষয়ে গোপন রাখেন বলেও জানা যায়।
আসমা জানায়, বিয়ের পরেই জানতে পারি ফারুক গার্মেন্টস ফ্যাক্টরিতে চাকুরি করলেও মূলত তিনি তার এলাকা ডাকাত ও মাদক ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচিত। সে যৌতুকের জন্য প্রায়ই গভীররাতে মাদকাসক্ত অবস্থা তাকে নির্যাতণ করতেন এবং আমাকে ছাড়াও ঢাকায় দুইটি,ভাটরা একটি বিয়ে করেন। আবারো বিয়ে করার আমার গর্ভে সন্তানের আগমনের কথা শুনে আমাকে মারধর করে গত ৮সাস আগে বাবার বাড়িতে পাঠিয়ে দেন। বাপের বাড়িতে আসার পর আমার সাথে যোগাযোগ বিছিন্ন করেন। সন্তান জম্মের ৩মাস পরেই গতকাল শুক্রবার পরিকল্পিতভাবে আমার সন্তানকে হত্যা করে আমাকে পাষানের চেষ্টা করে। আছমার বাবা আব্দুল মতিন জানান, ফারুক প্রতারণা করে আমার মেয়েকে বিয়ে করে আমাদের জীবনের সবগুলো অর্জন তছনছ করছেন। ইউপি মেম্বার মোহাম্মদ হোসেন বলেন, তার আগের একজন স্ত্রী দায়ের করা মামলায় জামিন পেয়ে পরবর্তিতে এ বিয়ে করেন।
ওমর ফারুক জানান, স্ত্রীকে নিয়ে শুক্রবার বিকেলে ঢাকা যেতে ছেয়েছি। স্ত্রী আছমার প্রতি অসন্তোষ হয়ে রাত ৮টার পরেই স্বজনদের বাড়িতে রাত যাপন করেছি।
থানা অফিসার ইনচার্জ ওসি মোহাম্মদ আনোার হোসেন জানান ময়নাতদন্ত রির্পোট পেয়ে তদন্ত সাপেক্ষে অপরাধীকে আইনের আওতাধীন আনা হবে।

Share Button

সর্বশেষ আপডেট



» হাতিয়ায় বোনকে গলা টিপে হত্যা করল ভাই

» সোনাইমুড়ীর জয়াগে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে তরুন গ্রাফিক্স ডিজাইনারের মৃত্যু

» বেগমগঞ্জে গোসল নিয়ে দ্বন্ধে যুবককে হত্যা, আটক ৫

» সোনাইমুড়ীতে পারিবারিক বিরোধে অবরুদ্ধ এক পরিবারের মানবেতর জীবন-যাপন

» করোনায় দক্ষিণ আফ্রিকায় বেগমগঞ্জের যুবকের মৃত্যু

» ইসলামিক ফোরাম অব আফ্রিকা ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত

» সুবর্ণচরে বয়স্ক ভাতার ঘুষ নিয়ে দ্বন্ধের জের ধরে কৃষককে কুপিয়ে হত্যা, আটক ৩

» সোনাইমুড়ীতে ধর্ষণের শিকার ছাত্রীর পরিবারকে এলাকা ছাড়ার হুমকি

» নোয়াখালীতে সুদের টাকার জন্য ব্যবসায়ীকে হত্যার অভিযোগ, লাশ নিয়ে বিক্ষোভ

» চাটখিলের খিলপাড়াতে ইসলামী ব্যাংকের ২য় শাখার কার্যক্রম শুরু

ফেইসবুকে প্রিয় নোয়াখালী

সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]
Desing & Developed BY Trust soft bd
,

রামগঞ্জে বিয়ে পাগল বাবা হত্যা করলো নিজ শিশু সন্তানকে

আবু তাহের ঃ
রামগঞ্জে ৩ মাস বয়সী পুত্রকে সুকৌশলে হত্যা করে ঘটনাটি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার পায়তারা করছেন বলেই অভিযোগ উঠেছে এক পাষন্ড পিতার বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার রাত সাড়ে বারটায় উপজেলার আথাকরা গ্রামের হাসিম ভূইঁয়া বাড়িতে। পুলিশ  শিশু সাইমুন মোবারককের লাশ উদ্বার করে লক্ষ্মীপুর জেলা হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।

একাধীক সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার বিকেলে শিশুটির পিতা বিয়ে পাগল ওমর ফারুক ঢাকা থেকে শ্বশুর বাড়িতে আসেন। স্যানেটাইজার বোতল মতই ওষধ নবজাতকের মুখে মেখে দেন। তখন থেকে নবজাতক কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। ঘটনাটি আভাস পেয়ে পাষান্ড পিতার শশুর বাড়ি থেকে না বলেই মুঠোফোন বন্ধ করে পালিয়ে যান। রাত দুইটা ৫০ মিনিটে নবজাতক মৃ্ত্যু হয়। সকালে পাষান্ড পিতা ঘটনাটি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার পায়তারা থানায় শশুর ও স্ত্রীর বিরুদ্ধে নালিশ করেন।
পাষান্ড পিতা ওমর ফারুক চাটখিল উপজেলার মনোহরপুর গ্রামের পাটোয়ারী বাড়ির আহসান উল্যাহর ছেলে । বর্তমানে সে ঢাকা রুপগঞ্জে বসবাস করেন। ওমর ফারুকের মামার বাড়ি ভাটরা মাইজপাড়া শেখের বাড়ি। মামার পরিচয় তিনি রামগঞ্জে সুকৌশলে দুইটি বিয়ে করেন। নবজাতকের মা আছমা আক্তার সহ তার আত্নীয় স্বজনরা জানান, ওমর ফারুক একজন নারী-লোভী, ভন্ড ও প্রতারক। তিঁনি লক্ষ্মীপুর যৌতুকের মামলায় জামিন পেয়ে আমাকে দেড় বছর আগে বিয়ে করেন। আসমাকে বিয়ে করার আগে তার ওই বিয়ে গুলোর বিষয়ে গোপন রাখেন বলেও জানা যায়।
আসমা জানায়, বিয়ের পরেই জানতে পারি ফারুক গার্মেন্টস ফ্যাক্টরিতে চাকুরি করলেও মূলত তিনি তার এলাকা ডাকাত ও মাদক ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচিত। সে যৌতুকের জন্য প্রায়ই গভীররাতে মাদকাসক্ত অবস্থা তাকে নির্যাতণ করতেন এবং আমাকে ছাড়াও ঢাকায় দুইটি,ভাটরা একটি বিয়ে করেন। আবারো বিয়ে করার আমার গর্ভে সন্তানের আগমনের কথা শুনে আমাকে মারধর করে গত ৮সাস আগে বাবার বাড়িতে পাঠিয়ে দেন। বাপের বাড়িতে আসার পর আমার সাথে যোগাযোগ বিছিন্ন করেন। সন্তান জম্মের ৩মাস পরেই গতকাল শুক্রবার পরিকল্পিতভাবে আমার সন্তানকে হত্যা করে আমাকে পাষানের চেষ্টা করে। আছমার বাবা আব্দুল মতিন জানান, ফারুক প্রতারণা করে আমার মেয়েকে বিয়ে করে আমাদের জীবনের সবগুলো অর্জন তছনছ করছেন। ইউপি মেম্বার মোহাম্মদ হোসেন বলেন, তার আগের একজন স্ত্রী দায়ের করা মামলায় জামিন পেয়ে পরবর্তিতে এ বিয়ে করেন।
ওমর ফারুক জানান, স্ত্রীকে নিয়ে শুক্রবার বিকেলে ঢাকা যেতে ছেয়েছি। স্ত্রী আছমার প্রতি অসন্তোষ হয়ে রাত ৮টার পরেই স্বজনদের বাড়িতে রাত যাপন করেছি।
থানা অফিসার ইনচার্জ ওসি মোহাম্মদ আনোার হোসেন জানান ময়নাতদন্ত রির্পোট পেয়ে তদন্ত সাপেক্ষে অপরাধীকে আইনের আওতাধীন আনা হবে।

Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



web-ad

সর্বশেষ আপডেট





সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]

Developed BY Trustsoftbd