রামগঞ্জে ইউপি চেয়ারম্যানের অত্যাচারে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী,এবার মামলার বাদীর উপর হামলা

আবু তাহেের, রামগঞ্জঃ
লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার ভোলাকোট ইউপি চেয়ারম্যান বশির আহম্মেদ মানিকের অত্যাচারে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী। তার বিরুদ্ধে ধর্ষন ও চাদাঁবাজীর অভিযোগে আদালতে মামলা করায় সে ক্ষিপ্ত হয়ে তার নেতৃত্বে তার ভাই এলজি নাসির এক দল সন্ত্রাসী নিয়ে ২৫ (আগষ্ট) মঙ্গলবার রাতে মামলার বাদীর ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান এবং প্রবীন এক আওয়ামীলীগ নেতার বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর শেষে ৪জনকে পিটিয়ে মারাত্বক আহত করে। স্থানীয়রা আহত আবু মিয়া (৮০), মনির হোসেন(৩৫), সাইফুল ইসলাম (৩৬) ও পারভেজ হোসেন (৩০) নামের ৪জনকে উদ্ধার করে রামগঞ্জ সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করলে মনির হোসেনর অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে ঢাকা মেডিকেলে রেপার করা হয়। আজ বুধবার সকালে চেয়ারম্যানের ভাই এলজি নাসেরসহ ৪জনকে আসামী করে রামগঞ্জ থানায় পৃথক পৃথক দুইটি মামলা করা হয়েছে।
সুত্রে জানা যায়, বশির আহম্মেদ মানিক ইউপি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর গত চার বছর থেকে তার নির্বাচিত এলাকায় সে এবং তার ভাই এলজি নাছেরের নেতৃত্বে সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজী, চিন্তাই, ডাকাতী, ধর্ষন এবং পরিষদের বিভিন্ন পান্ডের টাকা লোটপাটসহ বিভিন্ন অপকর্ম করে আসছে। তার এ সব অপকর্মের বিরুদ্ধে পরিষদের ১১জন ইউপি সদস্য ওই ইউনিয়নে প্রবীন নেতা উপজেলা আওয়ামীলীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক জামাল হোসেন দুলাল পাটোওয়ারীসহ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ. যুবলীগ, ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্ধ প্রতিবাদের ঝড় তুলে। এমন কি এসব বিষয়ে তাদের বিরুদ্ধে কয়েকটি মামলা হলে তার ভাই নাছির কয়েকবার গ্রেফতার হয়ে জেল খেটেছেন।
সম্প্রতি চেয়ারম্যান বশির আহম্মেদ মানিক তার গৃহপরিচারিকাকে ধর্ষন করলে গত ২২ জুলাই নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্র্যনাল আদালতে একটি মামলা দায়ের করা হয়। একইদিন সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আমলি আদালতে বেলায়েত হোসেন রিপন বাদী হয়ে আরো ্কটি মামলা করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে গতকাল মঙ্গলবার রাতে ওই মামলার বাদী বেলায়েত হোসেন রিপনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়ে ভাংচুর শেষে তার বৃদ্ধ বাবা আবু মিয়া এবং ছোট ভাই মনির হোসেনকে বেদড়ক পিটিয়ে মারাত্বক আহত করে। এর কিছুক্ষন পরেই আওয়ামীলীগ নেতা জামাল হোসেন দুলাল পাটোওয়ারীর বাড়ীতে হামলা চালিয়ে তাকে লাঞ্চিত শেষে তার ছেলে সাইফুল ইসলামকে পিটিয়ে মারাত্বক আহত করে।
সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আমলি আদালতে করা মামলার বাদী বেলায়েত হোসেন রিপন জানান, চেয়ারম্যান বশির আহম্মেদ মানিক ও তার ভাই এল জি নাছিরের অপকর্মের শেষ নাই। তাদের নেতৃত্বে সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজী, চিন্তাই, ডাকাতী, ধর্ষন এবং ইয়াবা ব্যবসা ও লোটপাটসহ বিভিন্ন অপকর্ম করে আসছে। কিন্ত যে প্রতিবাদ করে তার উপর চলে হামলা ও নির্যাতন। কিছুদিন পূর্বে আমার কাছে চাঁদা চেয়ে আমার দোকানে লোটপাট করায় অসহ্য হয়ে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করেছি । তার পরিনাম গতকাল রাতে আবারও দোকানে হামলা করে আমার বৃদ্ধ বাবা এবং ছোট ভাইকে পিটিয়ে মারাত্বক আহত করেছে।
মামলার বাদী জামাল হোসেন দুলাল পাটোওয়ারী জানান, তাদের অপকর্মে ভোলাকোটবাসি অতিষ্ঠ। গত চারবছরে তারা সন্ত্রাসী এবং চাঁদাবাজী করে অঢেল সম্পতির মালিক হয়েছেন। তাদের অপকর্মের প্রতিবাদ করায় বহুলোক পঙ্গ হয়েছেন । গতকাল রাতে আমার বাড়ীতে হামলা চালিয়ে আমাকে লাঞ্চিত করে এবং আমার ছেলেকে পিটিয়ে আহত করে।
এ ব্যপারে বার বার চেষ্টা করেও ভোলাকোট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বশির আহম্মেদ মানিকের সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।
রামগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আনোয়ার হোসেন জানান, ভাংচুর ও মারামারির বিষয়ে পৃথক পৃথক দুইটি মামলা হয়েছে। তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Share Button

সর্বশেষ আপডেট



» চাটখিলের রামনারায়নপুরে যুবদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন

» আবারও দক্ষিণ আফ্রিকায় ডাকাতের গুলিতে নোয়াখালীর যুবক খুন

» রামগঞ্জে কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় বিধবার উপর হামলা

» এএসপি পদোন্নতিতে লিটনকে চাটখিলে সংবর্ধনা

» বেগমগঞ্জে মাদ্রাসায় শিশু শিক্ষার্থীকে বলৎকার, ২ কিশোর আটক

» চাটখিল ও সোনাইমুড়ীতে পূজামণ্ডপ পরিদর্শন ও অনুদান দিলেন জাহাঙ্গীর আলম 

» ধর্ষকদের জন্য আ’লীগের দরজা চিরতরে বন্ধ:ওবায়দুল কাদের

» বাহরাইনে সড়ক দূর্ঘটনায় সেনবাগের হিরন নিহত

» চাটখিলে ধর্ষক শরীফের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে জনতার মানববন্ধন

» গুলি ফুটিয়ে ভয় দেখিয়ে আরেক নারীকে ধর্ষন যুবলীগ নেতা শরীফের

ফেইসবুকে প্রিয় নোয়াখালী

সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]
Desing & Developed BY Trust soft bd
,

রামগঞ্জে ইউপি চেয়ারম্যানের অত্যাচারে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী,এবার মামলার বাদীর উপর হামলা

আবু তাহেের, রামগঞ্জঃ
লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার ভোলাকোট ইউপি চেয়ারম্যান বশির আহম্মেদ মানিকের অত্যাচারে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী। তার বিরুদ্ধে ধর্ষন ও চাদাঁবাজীর অভিযোগে আদালতে মামলা করায় সে ক্ষিপ্ত হয়ে তার নেতৃত্বে তার ভাই এলজি নাসির এক দল সন্ত্রাসী নিয়ে ২৫ (আগষ্ট) মঙ্গলবার রাতে মামলার বাদীর ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান এবং প্রবীন এক আওয়ামীলীগ নেতার বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর শেষে ৪জনকে পিটিয়ে মারাত্বক আহত করে। স্থানীয়রা আহত আবু মিয়া (৮০), মনির হোসেন(৩৫), সাইফুল ইসলাম (৩৬) ও পারভেজ হোসেন (৩০) নামের ৪জনকে উদ্ধার করে রামগঞ্জ সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করলে মনির হোসেনর অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে ঢাকা মেডিকেলে রেপার করা হয়। আজ বুধবার সকালে চেয়ারম্যানের ভাই এলজি নাসেরসহ ৪জনকে আসামী করে রামগঞ্জ থানায় পৃথক পৃথক দুইটি মামলা করা হয়েছে।
সুত্রে জানা যায়, বশির আহম্মেদ মানিক ইউপি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর গত চার বছর থেকে তার নির্বাচিত এলাকায় সে এবং তার ভাই এলজি নাছেরের নেতৃত্বে সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজী, চিন্তাই, ডাকাতী, ধর্ষন এবং পরিষদের বিভিন্ন পান্ডের টাকা লোটপাটসহ বিভিন্ন অপকর্ম করে আসছে। তার এ সব অপকর্মের বিরুদ্ধে পরিষদের ১১জন ইউপি সদস্য ওই ইউনিয়নে প্রবীন নেতা উপজেলা আওয়ামীলীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক জামাল হোসেন দুলাল পাটোওয়ারীসহ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ. যুবলীগ, ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্ধ প্রতিবাদের ঝড় তুলে। এমন কি এসব বিষয়ে তাদের বিরুদ্ধে কয়েকটি মামলা হলে তার ভাই নাছির কয়েকবার গ্রেফতার হয়ে জেল খেটেছেন।
সম্প্রতি চেয়ারম্যান বশির আহম্মেদ মানিক তার গৃহপরিচারিকাকে ধর্ষন করলে গত ২২ জুলাই নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্র্যনাল আদালতে একটি মামলা দায়ের করা হয়। একইদিন সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আমলি আদালতে বেলায়েত হোসেন রিপন বাদী হয়ে আরো ্কটি মামলা করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে গতকাল মঙ্গলবার রাতে ওই মামলার বাদী বেলায়েত হোসেন রিপনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়ে ভাংচুর শেষে তার বৃদ্ধ বাবা আবু মিয়া এবং ছোট ভাই মনির হোসেনকে বেদড়ক পিটিয়ে মারাত্বক আহত করে। এর কিছুক্ষন পরেই আওয়ামীলীগ নেতা জামাল হোসেন দুলাল পাটোওয়ারীর বাড়ীতে হামলা চালিয়ে তাকে লাঞ্চিত শেষে তার ছেলে সাইফুল ইসলামকে পিটিয়ে মারাত্বক আহত করে।
সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আমলি আদালতে করা মামলার বাদী বেলায়েত হোসেন রিপন জানান, চেয়ারম্যান বশির আহম্মেদ মানিক ও তার ভাই এল জি নাছিরের অপকর্মের শেষ নাই। তাদের নেতৃত্বে সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজী, চিন্তাই, ডাকাতী, ধর্ষন এবং ইয়াবা ব্যবসা ও লোটপাটসহ বিভিন্ন অপকর্ম করে আসছে। কিন্ত যে প্রতিবাদ করে তার উপর চলে হামলা ও নির্যাতন। কিছুদিন পূর্বে আমার কাছে চাঁদা চেয়ে আমার দোকানে লোটপাট করায় অসহ্য হয়ে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করেছি । তার পরিনাম গতকাল রাতে আবারও দোকানে হামলা করে আমার বৃদ্ধ বাবা এবং ছোট ভাইকে পিটিয়ে মারাত্বক আহত করেছে।
মামলার বাদী জামাল হোসেন দুলাল পাটোওয়ারী জানান, তাদের অপকর্মে ভোলাকোটবাসি অতিষ্ঠ। গত চারবছরে তারা সন্ত্রাসী এবং চাঁদাবাজী করে অঢেল সম্পতির মালিক হয়েছেন। তাদের অপকর্মের প্রতিবাদ করায় বহুলোক পঙ্গ হয়েছেন । গতকাল রাতে আমার বাড়ীতে হামলা চালিয়ে আমাকে লাঞ্চিত করে এবং আমার ছেলেকে পিটিয়ে আহত করে।
এ ব্যপারে বার বার চেষ্টা করেও ভোলাকোট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বশির আহম্মেদ মানিকের সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।
রামগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আনোয়ার হোসেন জানান, ভাংচুর ও মারামারির বিষয়ে পৃথক পৃথক দুইটি মামলা হয়েছে। তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



web-ad

সর্বশেষ আপডেট





সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]

Developed BY Trustsoftbd