রামগঞ্জে ৭কোটি ২০লাখ টাকার টেন্ডার বানিজ্য, প্রকৌশলী অবরুদ্ধ

 

 


আবু তাহের ঃ
লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আবুল খায়ের পাটোওয়ারী সু-কৌশলে পৌরসভার নিবন্ধনকৃত ২১ জন ঠিকাদারের লাইসেন্স নবায়ন না করে তাদের লাইসেন্স আটকে রেখে অবকাঠামো উন্নয়নের জন্য বরাদ্দকৃত ৭কোটি বিশ লক্ষ টাকার টেন্ডার প্রকল্প সিন্ডিকেটের মাধ্যমে মেয়র তার পছন্দমত ৪জন ঠিকাদারকে ইজিপি টেন্ডারে অংশগ্রহনের সুযোগ দিয়ে ভাগ বাটোয়ারা করে নিয়েছেন। খবর পেয়ে ৯ডিসেম্বর বুধবার সকালে বঞ্চিত ঠিকাদাররা পৌরসভার সহকারি প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেন ও তার কার্যসহকারী মোঃ নূর হোসেনকে অবরুদ্ধ করলে মেয়র মোবাইলে লাইসেন্সগুলো নবায়ন করার কথা বললেও ভাগ বাটোয়ারার বিষয়ে ৭কোটি ২০লক্ষ টাকা টেন্ডারের বিষয়ে কোন সঠিক কোন জবাব দিতে পারেননি।
অভিযোগ সুত্রে জানা যায় , ২০২০-২০২১অর্থবছরের রামগঞ্জ পৌরসভার তালিকাভুক্ত ২৫ জন ঠিকাদারের মধ্যে ২১ জন ঠিকাদার সকল প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে পৌরসভার কার্যসহকারি নুর হোসেনের কাছে লাইসেন্স নবায়ন ফি জমা দিলেও মেয়র কৌশলে তাদের লাইসেন্স আটকে রেখে শুধু তার পছন্দমত গোপনে জয় এন্টারপ্রাইজ, এস এস ট্রেডার্স, এন বি ট্রেডার্স, আলমগীর ট্রেডার্স নামে ৪ ঠিকাদারের লাইসেন্স নবায়ন করে বাকী ২১ ঠিকাদারের লাইসেন্স মেয়র পৌরসভার নিজ দপ্তরে ব্যক্তিগত ড্রয়ারে তালাবদ্ধ করে রেখে বাকী ৪জনকে ইজিপিতে টেন্ডারের প্রদানের সুযোগ করে দিয়ে ৭ কোটি ২০ লক্ষ টাকার কাজ ভাগবাটোয়ারা করে নিয়েছেন।
এর আগে ১৬ নভেম্বর ২০২০ইং পৌরসভার অবকাঠামো উন্নয়ন সংক্রান্ত একটি টেন্ডার খুবই অল্প প্রচার সংখ্যার বাংলা দৈনিক ও অপরিচিত একটি ইংরেজী দৈনিকে মোট ১১টি গ্রুপে টেন্ডার আহ্বান করা হয়। ইজিপি সিস্টেম অনুযায়ী টেন্ডারে অংশগ্রহনের শেষ তারিখ ছিল ০২ ডিসেম্বর । এর মধ্যে ২১জন ঠিকাদারের লাইসন্সে নবায়ন না হওয়ায় তারা ইজিপিতে অংশগ্রহন করতে পারে নাই। ফলে সংশ্লিষ্ট সিন্ডিকেটের ৪ ঠিকাদার ১১টি প্রকল্পের বিপরিতে মেয়রের সাথে ৬% হারে সমঝোতা করে ইজিপিতে টেন্ডারে অংশগ্রহন করেন। ।
পৌরসভার নিবন্ধিত ঠিকাদারদের মধ্যে যারা টেন্ডারে অংশ নেওয়ার সুযোগই পাননি তাদের মধ্যে মমতাজ ট্রেডার্স, সাফওয়া ট্রেডার্স, সালমান ট্রেডার্স, লামিয়া এন্ড তানবির ট্রেডার্স, ভুঁইয়া ট্রেডার্স সহ ২১ জন ঠিকাদার জানান , আপডেট টেন্ডার আইন অনুযায়ি সব সরকারি টেন্ডার ইজিপিতে করার নিয়ম থাকলেও মেয়র আমাদের লাইসেন্স নবায়নের কথা বলে আটকে রেখে খুবই অল্প প্রচার সংখ্যার বাংলা দৈনিক ও অপরিচিত একটি ইংরেজী দৈনিকে টেন্ডার আহবান করে শুধু তার পচন্দের ৪টি লাইসেন্স নবায়ন করে। পরে তাদের ওই ৪লাইসেন্সে প্রকল্পের কাজ ভাগ বাটোয়ারা করে নেয়। এখানে আমাদেরকে বঞ্চিত করে মেয়র ৬%হারে মোটা অংকের লেনদেন করেছে। সেকারনেই ঘোষিত টেন্ডার প্রক্রিয়া বাতিল করে অবিলম্বে রিটেন্ডার করার জন্য স্থানীয় সরকার কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষন করেছি।
পৌরসভা কার্যসহকারি নুর হোসেন জানান, নিবন্ধনকৃত ২১ জন ঠিকাদার লাইসেন্স নবায়নের ফি আমার কাছে জমা দিয়েছে। আমি সকল প্রক্রিয়া শেষ করে মেয়র সাহেবকে বার বার বলার পরও বাকী ২১ঠিকাদরী প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স নবায়ন করেননি। কেন নবায়ন করেননি সেটা মেয়র ভালো বলতে পারবেন।
রামগঞ্জ পৌরসভার সহকারি প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেন জানান, নিয়ম মোতাবেক পত্রিকায় টেন্ডার আহবান করা হয়েছে। ২১টি লাইসেন্স কেন নবায়ন হয়নি সেটা আমার জানা নাই। এখানে ৫জন ঠিকাদার টেন্ডারে অংশগ্রহন করে শান্তা ট্রেডার্স সবগুলো প্রকল্পে লয়েস্ট হলেও তার লাইসেন্স নবায়ন না থাকায় সেটি বাতিল হবে।
রামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আবুল খায়ের পাটোওয়ারী জানান, বঞ্চিত ঠিকাদারগন তাদের লাইসেন্স নবায়ন না হলে তারা আমার কাছে আসা উচিৎ ছিল। আমি ঢাকা থেকে আসার পর তাদের লাইসেন্স নবায়ন করে দিবো। এখন নবায়ন করলেও তো তারা এ টেন্ডারে অংশগ্রহনের সুযোগ নাই এবং ভাগ বাটোয়ারাসহ এসব বিষয় প্রশ্ন করলে তিনি কোন সদুত্তর দিতে পারেননি।

Share Button

সর্বশেষ আপডেট



» চাটখিলে তরুনীকে ধর্ষন চেষ্টা, সাবেক স্বামী আটক

» সোনাইমুড়ীতে বন্ধুর শ্যালিকে ধর্ষণ, ডান্সার শ্রীঘরে

» নোয়াখালীতে প্রথম দিন চলছে ঢিলেঢালা লকডাউন

» জিয়ার খেতাব বাতিল করলে বঙ্গবন্ধুকে অপমান করা হবে – জয়নাল হাজারী

» চাটখিলে ফেসবুক গ্যালারী নামে তরুনদের জামা কাপড়ের সোপের উদ্বোধন

» ওয়াজ মাহফিল বন্ধ করা নিয়ে মির্জা কাদেরের ক্ষোভ

» চাটখিল ক্রিকেট একাডেমীর ৮ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উৎযাপন

» দক্ষিণ আফ্রিকায় ডাকাতের গুলিতে সোনাইমুড়ীর তরুণ সজিবের মৃত্যু

» কোম্পানীগঞ্জে কাদের মির্জার ফাঁসির  দাবিতে পোস্টারিং

» চাটখিলে ফুটবল টুর্নামেন্টের পুরস্কার বিতরনী

ফেইসবুকে প্রিয় নোয়াখালী

সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]
Desing & Developed BY Trust soft bd
,

রামগঞ্জে ৭কোটি ২০লাখ টাকার টেন্ডার বানিজ্য, প্রকৌশলী অবরুদ্ধ

 

 


আবু তাহের ঃ
লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আবুল খায়ের পাটোওয়ারী সু-কৌশলে পৌরসভার নিবন্ধনকৃত ২১ জন ঠিকাদারের লাইসেন্স নবায়ন না করে তাদের লাইসেন্স আটকে রেখে অবকাঠামো উন্নয়নের জন্য বরাদ্দকৃত ৭কোটি বিশ লক্ষ টাকার টেন্ডার প্রকল্প সিন্ডিকেটের মাধ্যমে মেয়র তার পছন্দমত ৪জন ঠিকাদারকে ইজিপি টেন্ডারে অংশগ্রহনের সুযোগ দিয়ে ভাগ বাটোয়ারা করে নিয়েছেন। খবর পেয়ে ৯ডিসেম্বর বুধবার সকালে বঞ্চিত ঠিকাদাররা পৌরসভার সহকারি প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেন ও তার কার্যসহকারী মোঃ নূর হোসেনকে অবরুদ্ধ করলে মেয়র মোবাইলে লাইসেন্সগুলো নবায়ন করার কথা বললেও ভাগ বাটোয়ারার বিষয়ে ৭কোটি ২০লক্ষ টাকা টেন্ডারের বিষয়ে কোন সঠিক কোন জবাব দিতে পারেননি।
অভিযোগ সুত্রে জানা যায় , ২০২০-২০২১অর্থবছরের রামগঞ্জ পৌরসভার তালিকাভুক্ত ২৫ জন ঠিকাদারের মধ্যে ২১ জন ঠিকাদার সকল প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে পৌরসভার কার্যসহকারি নুর হোসেনের কাছে লাইসেন্স নবায়ন ফি জমা দিলেও মেয়র কৌশলে তাদের লাইসেন্স আটকে রেখে শুধু তার পছন্দমত গোপনে জয় এন্টারপ্রাইজ, এস এস ট্রেডার্স, এন বি ট্রেডার্স, আলমগীর ট্রেডার্স নামে ৪ ঠিকাদারের লাইসেন্স নবায়ন করে বাকী ২১ ঠিকাদারের লাইসেন্স মেয়র পৌরসভার নিজ দপ্তরে ব্যক্তিগত ড্রয়ারে তালাবদ্ধ করে রেখে বাকী ৪জনকে ইজিপিতে টেন্ডারের প্রদানের সুযোগ করে দিয়ে ৭ কোটি ২০ লক্ষ টাকার কাজ ভাগবাটোয়ারা করে নিয়েছেন।
এর আগে ১৬ নভেম্বর ২০২০ইং পৌরসভার অবকাঠামো উন্নয়ন সংক্রান্ত একটি টেন্ডার খুবই অল্প প্রচার সংখ্যার বাংলা দৈনিক ও অপরিচিত একটি ইংরেজী দৈনিকে মোট ১১টি গ্রুপে টেন্ডার আহ্বান করা হয়। ইজিপি সিস্টেম অনুযায়ী টেন্ডারে অংশগ্রহনের শেষ তারিখ ছিল ০২ ডিসেম্বর । এর মধ্যে ২১জন ঠিকাদারের লাইসন্সে নবায়ন না হওয়ায় তারা ইজিপিতে অংশগ্রহন করতে পারে নাই। ফলে সংশ্লিষ্ট সিন্ডিকেটের ৪ ঠিকাদার ১১টি প্রকল্পের বিপরিতে মেয়রের সাথে ৬% হারে সমঝোতা করে ইজিপিতে টেন্ডারে অংশগ্রহন করেন। ।
পৌরসভার নিবন্ধিত ঠিকাদারদের মধ্যে যারা টেন্ডারে অংশ নেওয়ার সুযোগই পাননি তাদের মধ্যে মমতাজ ট্রেডার্স, সাফওয়া ট্রেডার্স, সালমান ট্রেডার্স, লামিয়া এন্ড তানবির ট্রেডার্স, ভুঁইয়া ট্রেডার্স সহ ২১ জন ঠিকাদার জানান , আপডেট টেন্ডার আইন অনুযায়ি সব সরকারি টেন্ডার ইজিপিতে করার নিয়ম থাকলেও মেয়র আমাদের লাইসেন্স নবায়নের কথা বলে আটকে রেখে খুবই অল্প প্রচার সংখ্যার বাংলা দৈনিক ও অপরিচিত একটি ইংরেজী দৈনিকে টেন্ডার আহবান করে শুধু তার পচন্দের ৪টি লাইসেন্স নবায়ন করে। পরে তাদের ওই ৪লাইসেন্সে প্রকল্পের কাজ ভাগ বাটোয়ারা করে নেয়। এখানে আমাদেরকে বঞ্চিত করে মেয়র ৬%হারে মোটা অংকের লেনদেন করেছে। সেকারনেই ঘোষিত টেন্ডার প্রক্রিয়া বাতিল করে অবিলম্বে রিটেন্ডার করার জন্য স্থানীয় সরকার কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষন করেছি।
পৌরসভা কার্যসহকারি নুর হোসেন জানান, নিবন্ধনকৃত ২১ জন ঠিকাদার লাইসেন্স নবায়নের ফি আমার কাছে জমা দিয়েছে। আমি সকল প্রক্রিয়া শেষ করে মেয়র সাহেবকে বার বার বলার পরও বাকী ২১ঠিকাদরী প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স নবায়ন করেননি। কেন নবায়ন করেননি সেটা মেয়র ভালো বলতে পারবেন।
রামগঞ্জ পৌরসভার সহকারি প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেন জানান, নিয়ম মোতাবেক পত্রিকায় টেন্ডার আহবান করা হয়েছে। ২১টি লাইসেন্স কেন নবায়ন হয়নি সেটা আমার জানা নাই। এখানে ৫জন ঠিকাদার টেন্ডারে অংশগ্রহন করে শান্তা ট্রেডার্স সবগুলো প্রকল্পে লয়েস্ট হলেও তার লাইসেন্স নবায়ন না থাকায় সেটি বাতিল হবে।
রামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আবুল খায়ের পাটোওয়ারী জানান, বঞ্চিত ঠিকাদারগন তাদের লাইসেন্স নবায়ন না হলে তারা আমার কাছে আসা উচিৎ ছিল। আমি ঢাকা থেকে আসার পর তাদের লাইসেন্স নবায়ন করে দিবো। এখন নবায়ন করলেও তো তারা এ টেন্ডারে অংশগ্রহনের সুযোগ নাই এবং ভাগ বাটোয়ারাসহ এসব বিষয় প্রশ্ন করলে তিনি কোন সদুত্তর দিতে পারেননি।

Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



web-ad

সর্বশেষ আপডেট





সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]

Developed BY Trustsoftbd