দেশে বিরোধী দল নেই,আ’লীগ এক তরফা সব করছে, এটা হচ্ছে দুঃশাসন: কাদের মির্জা  

 

 

স্পেশাল করেসপন্ডেন্টঃ
বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জা বলেছেন, আমি জানি ভবিষ্যতে বাংলাদেশে আজকে যে অপরাজনীতি অনিয়ম,দুর্নীতি ভোট চুরির রাজনীতি চলছে তার অবসান ঘটনার জন্য সাংবাদিকরা সাথে থাকবেন। এই রাঙ্গা সেই রাঙ্গা। যে রাঙ্গাকে পৌরসভার মেয়র থেকে মন্ত্রী করেছে। আজকে সেই রাঙ্গা প্রধানমন্ত্রীকে বলে স্বৈরাচার। এরশাদ বিরোধী আন্দোলনের সেই নূর হোসেনকে বলেছে মাদকাসক্ত,ইয়াবাসক্ত। এই পাগল। কোথ থেকে এনে এদেরকে মন্ত্রী বানায়,আমি বুঝিনা। এরা বানর। রাঙ্গা পরিবহন জগতের শ্রেষ্ঠ চাঁদাবাজ। পরিবহন জগতকে ধুয়ে মুছে খেয়েছেন আপনি। আজকে বড় বড় কথা বলেন।

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১টায় বসুরহাট পৌরসভা হলরুমে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে জাতীয় সংসদের চতুর্দশ অধিবেশনের সমাপনী দিনে বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ মশিউর রহমান রাঙ্গার দেওয়া বক্তব্যের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় মেয়র সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে উদ্দেশ্য করে বলেন, আপনি আপনার স্ত্রীকে সামলান। একরাম থেকে নিজাম থেকে মন্ত্রীর স্ত্রী দেড় কোটি টাকা দিয়েছে আমাকে হত্যার জন্য। ওবায়দুল কাদের তার মন্ত্রণালয়ের খবর রাখেনা। আজকে তার স্ত্রী চালায় মন্ত্রণালয়। রোডস্ চালায় কে? রোডস্ চালায় সচিব নজরুল ও তার স্ত্রী। সেতুমন্ত্রণালয় চালায় দুর্নীতিবাজ বেলায়েত। আমি যদি মিথ্যা কথা বলি জিহ্বা কেটে দেব। ওবায়দুল কাদের বলেছেন ঘরে ঘরে চাকরি দিবেন। তিনি ঘরে ঘরে চাকরি দেয়নি। তিনি দিয়েছেন কি? তিনি দিয়েছেন ঘরে ঘরে মামলা এবং হামলা। আপনার কর্মকর্তা কর্মচারীদের বিদেশে বাড়ি ঘর। বিদেশে তাদের গাড়ি বাংলাদেশে ফ্ল্যাট,গাড়ি। আর আমার কর্মিরা দু’বেলা খেতে পায়না। ওবায়দুল কাদের সাহেব জবাব আপনাকে দিতে হবে, দিতে হবে। যে মহিলারা বাড়ি বাড়ি আপনার জন্য ভোট চাইছে আজকে তাদের বস্ত্র নেই। আপনার স্ত্রী ২৫লক্ষ টাকা দামের শাড়ি পরে। আর তারা দুই শত টাকার একটি শাড়ি পরে চলতে পারেনা। এটা হচ্ছে দৃশ্য। কোথায় ব্যস্ত থাকেন সব খবর আছে। হাচা (সত্য) কথা কইলে পাগল। মাঝে মধ্যে মেলা লোকে কয় আতে মনে হয় হাগল।

কাদের মির্জা অভিযোগ করে বলেন, আজকে এসব কেন চলে? দেশে বিরোধী দল নেই। এজন্য এ গুলো চলতেছে। আওয়ামীলীগ এক তরফা বাক (সব) করের। এটা হচ্ছে দুঃশাসন। দুঃশাসন চলছে। এক তরফা সব হইতেছে। সব লুটপাট করতেছে। কেউ বলার কেউ নেই। আর ক্ষমতায় বেশি দিন থাকলে যা হওয়ার তাই হইতেছে। এখন সবাই আখের গোছানোর কাজে ব্যস্ত। আমরা বকৃক্তাদি, আমি দিছি। বিএনপি দুর্নীতিতে চার-পাঁচ বার চ্যাম্পিয়ন হইছে। আগে আমরা আগে বলতাম কি। দেওয়ালের লিখন পড়ুন সরকার বাহাদুর। এখন বলবো মানুষের হৃদয়ের খবর নিন জননেত্রী শেখ হাসিনা। আজকে আপনারা চ্যাম্পিয়ন নয় আরও বড় চ্যাম্পিয়ন হবেন। যদি এখন খোঁজ খবর নেন। নেত্রী আপনার সকল অর্জন শেষ করে দিচ্ছ রাজনীতিবিদ-প্রশাসন। আজকে দলের প্রতি আর রাজনৈতিক নেতাদের প্রতি আজকে ঘৃণা এসছে বিশ্বাস করেন সাংবাদিক ভাইয়েরা।

তিনি আরও বলেন, আমরা সিন্ধান্ত নিয়েছে আমরা আন্দোলনের মাধ্যমে আমরা আমাদের অধিকার আদায় করব। আগামী শনিবার বিকেলে প্রত্যেকটা ইউনিয়ন ও বসুরহাট পৌরসভার প্রত্যেকটা ওয়ার্ডে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হবে। আগামী সাত দিন সময় দিলাম। এর পরে পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে। এরপরে আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের বিক্ষোভ। এরপরে ছাত্রলীগ ও মহিলাদের বিক্ষোভ হবে। এরপরে উপজেলার অনিয়মের প্রতিবাদে উপজেলা পরিষদ ও উপজেলা প্রশাসন ঘেরাও করা হবে। এরপরে ঢাকাতে সাংবাদিক সম্মেলন এবং মানববন্ধন করব। এরপরেও দাবি মানা না হয় তাহলে অনশন সহ কঠোর আন্দোলনের ডাক দেব।

Share Button

সর্বশেষ আপডেট



» চাটখিলের পরকোটে ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থীর মোটর শোভাযাত্রা

» নোয়াখালী বিভাগ বাস্তবায়নের দাবীতে মানববন্ধন

» যারা ভোট ডাকাতি করে, জনগণের প্রতি তাদের দায়িত্ব-মমত্ব বোধ নেই: আ স ম রব  

»

» দক্ষিণ আফ্রিকায় কর্মচারীর হাতে নোয়াখালীর যুবক খুন

» পুজামন্ডপে পবিত্র কোরআন অবমানায় চাটখিলে বিক্ষোভ মিছিল

» চাটখিলে সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবীতে শত শত মানুষের বিক্ষোভ ও মানববন্ধন

» ছেলের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা, পালাতে সহযোগিতা করায় বাবা গ্রেফতার

» নোয়াখালীতে কারাগারে সেনবাগের বৃদ্ধ হাজতির মৃত্যু

» চাটখিলে নববধুর গলায় ফাঁস দেয়ার কারন যা বলছে স্থানিয়রা

ফেইসবুকে প্রিয় নোয়াখালী

সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল kanon.press@gmail.com
Desing & Developed BY Trust soft bd
,

দেশে বিরোধী দল নেই,আ’লীগ এক তরফা সব করছে, এটা হচ্ছে দুঃশাসন: কাদের মির্জা  

 

 

স্পেশাল করেসপন্ডেন্টঃ
বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জা বলেছেন, আমি জানি ভবিষ্যতে বাংলাদেশে আজকে যে অপরাজনীতি অনিয়ম,দুর্নীতি ভোট চুরির রাজনীতি চলছে তার অবসান ঘটনার জন্য সাংবাদিকরা সাথে থাকবেন। এই রাঙ্গা সেই রাঙ্গা। যে রাঙ্গাকে পৌরসভার মেয়র থেকে মন্ত্রী করেছে। আজকে সেই রাঙ্গা প্রধানমন্ত্রীকে বলে স্বৈরাচার। এরশাদ বিরোধী আন্দোলনের সেই নূর হোসেনকে বলেছে মাদকাসক্ত,ইয়াবাসক্ত। এই পাগল। কোথ থেকে এনে এদেরকে মন্ত্রী বানায়,আমি বুঝিনা। এরা বানর। রাঙ্গা পরিবহন জগতের শ্রেষ্ঠ চাঁদাবাজ। পরিবহন জগতকে ধুয়ে মুছে খেয়েছেন আপনি। আজকে বড় বড় কথা বলেন।

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১টায় বসুরহাট পৌরসভা হলরুমে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে জাতীয় সংসদের চতুর্দশ অধিবেশনের সমাপনী দিনে বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ মশিউর রহমান রাঙ্গার দেওয়া বক্তব্যের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় মেয়র সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে উদ্দেশ্য করে বলেন, আপনি আপনার স্ত্রীকে সামলান। একরাম থেকে নিজাম থেকে মন্ত্রীর স্ত্রী দেড় কোটি টাকা দিয়েছে আমাকে হত্যার জন্য। ওবায়দুল কাদের তার মন্ত্রণালয়ের খবর রাখেনা। আজকে তার স্ত্রী চালায় মন্ত্রণালয়। রোডস্ চালায় কে? রোডস্ চালায় সচিব নজরুল ও তার স্ত্রী। সেতুমন্ত্রণালয় চালায় দুর্নীতিবাজ বেলায়েত। আমি যদি মিথ্যা কথা বলি জিহ্বা কেটে দেব। ওবায়দুল কাদের বলেছেন ঘরে ঘরে চাকরি দিবেন। তিনি ঘরে ঘরে চাকরি দেয়নি। তিনি দিয়েছেন কি? তিনি দিয়েছেন ঘরে ঘরে মামলা এবং হামলা। আপনার কর্মকর্তা কর্মচারীদের বিদেশে বাড়ি ঘর। বিদেশে তাদের গাড়ি বাংলাদেশে ফ্ল্যাট,গাড়ি। আর আমার কর্মিরা দু’বেলা খেতে পায়না। ওবায়দুল কাদের সাহেব জবাব আপনাকে দিতে হবে, দিতে হবে। যে মহিলারা বাড়ি বাড়ি আপনার জন্য ভোট চাইছে আজকে তাদের বস্ত্র নেই। আপনার স্ত্রী ২৫লক্ষ টাকা দামের শাড়ি পরে। আর তারা দুই শত টাকার একটি শাড়ি পরে চলতে পারেনা। এটা হচ্ছে দৃশ্য। কোথায় ব্যস্ত থাকেন সব খবর আছে। হাচা (সত্য) কথা কইলে পাগল। মাঝে মধ্যে মেলা লোকে কয় আতে মনে হয় হাগল।

কাদের মির্জা অভিযোগ করে বলেন, আজকে এসব কেন চলে? দেশে বিরোধী দল নেই। এজন্য এ গুলো চলতেছে। আওয়ামীলীগ এক তরফা বাক (সব) করের। এটা হচ্ছে দুঃশাসন। দুঃশাসন চলছে। এক তরফা সব হইতেছে। সব লুটপাট করতেছে। কেউ বলার কেউ নেই। আর ক্ষমতায় বেশি দিন থাকলে যা হওয়ার তাই হইতেছে। এখন সবাই আখের গোছানোর কাজে ব্যস্ত। আমরা বকৃক্তাদি, আমি দিছি। বিএনপি দুর্নীতিতে চার-পাঁচ বার চ্যাম্পিয়ন হইছে। আগে আমরা আগে বলতাম কি। দেওয়ালের লিখন পড়ুন সরকার বাহাদুর। এখন বলবো মানুষের হৃদয়ের খবর নিন জননেত্রী শেখ হাসিনা। আজকে আপনারা চ্যাম্পিয়ন নয় আরও বড় চ্যাম্পিয়ন হবেন। যদি এখন খোঁজ খবর নেন। নেত্রী আপনার সকল অর্জন শেষ করে দিচ্ছ রাজনীতিবিদ-প্রশাসন। আজকে দলের প্রতি আর রাজনৈতিক নেতাদের প্রতি আজকে ঘৃণা এসছে বিশ্বাস করেন সাংবাদিক ভাইয়েরা।

তিনি আরও বলেন, আমরা সিন্ধান্ত নিয়েছে আমরা আন্দোলনের মাধ্যমে আমরা আমাদের অধিকার আদায় করব। আগামী শনিবার বিকেলে প্রত্যেকটা ইউনিয়ন ও বসুরহাট পৌরসভার প্রত্যেকটা ওয়ার্ডে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হবে। আগামী সাত দিন সময় দিলাম। এর পরে পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে। এরপরে আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের বিক্ষোভ। এরপরে ছাত্রলীগ ও মহিলাদের বিক্ষোভ হবে। এরপরে উপজেলার অনিয়মের প্রতিবাদে উপজেলা পরিষদ ও উপজেলা প্রশাসন ঘেরাও করা হবে। এরপরে ঢাকাতে সাংবাদিক সম্মেলন এবং মানববন্ধন করব। এরপরেও দাবি মানা না হয় তাহলে অনশন সহ কঠোর আন্দোলনের ডাক দেব।

Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



web-ad

সর্বশেষ আপডেট





সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল kanon.press@gmail.com

Developed BY Trustsoftbd