ADS170638-2

নিষিদ্ধ সময়ে মেঘনায় মা ইলিশ শিকারের দায়ে ১৪ জেলের কারাদণ্ড

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি : নিষিদ্ধ সময়ে মেঘনা নদীতে ডিমওয়ালা মা ইলিশ শিকারের অপরাধে লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে ১৪ জেলেকে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। রোববার দুপুরে ভ্রাম্যমাণআদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ রফিকুল হক তাদেরকে এ দণ্ড দেন। এর আগে রোববার ভোর রাতে মেঘনা নদীর বিভিন্ন পয়েন্টে অভিযান চালিয়ে মাছধরার দু’টি নৌকা ও দুই হাজার মিটার জালসহ তাদেরকে আটক করা হয়।
দ-প্রাপ্ত জেলেরা হচ্ছেন-ভোলার তজুমুদ্দিন এলাকার মো. ইলিয়াস (৪০), মো. সিরাজ (৩৮), মো. নোমান (২০), মো. নাজিম (৩৬), মো. আইয়ুব (২৭), নুরে আলম (৪৫), মো. মিজান (২৯), মো. মিরাজ (২০), মো. রিয়াজ (২৩), মো. শাহীন (১৮), একই জেলার লালমোহন এলাকার মো. লোকমান (৪০), মো. ইউনুছ (৩২), মো. মনির (২০) ও নোয়াখালীর সুবর্ণচর এলাকার মো. ইসমাইল (৩২)।
উপজেলা মৎস্য বিভাগ সূত্রে জানা যায়, জাতীয় মাছ ইলিশের ভরা প্রজনন মৌসুমে ডিমওয়ালা মা ইলিশ সংরক্ষণের লক্ষে সরকার ৭ অক্টোবর থেকে ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত মেঘনা নদীর বিভিন্ন অববাহিকায় সব ধরনের মাছধরার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেন। ওই ২২দিন নদীতে সব ধরনের মাছধরা নিষিদ্ধ করার পাশাপাশি ইলিশ ক্রয়-বিক্রয়, বাজারজাতকরণ, সংরক্ষণ এবং পরিবহনও নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়। এ নিষেধাজ্ঞা বাস্তবায়নে রোববার ভোর রাতে মেঘনা নদীর উপজেলার বিভিন্ন পয়েন্টে উপজেলা প্রশাসন অভিযান পরিচালনা করেন। ওই সময় নদীতে মাছ শিকারকালে দু’টি নৌকা ও দুই হাজার মিটার জালসহ ১৪ জেলেকে হাতেনাতে আটক করা হয়। পরে তাদেরকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করা হলে বিচারক প্রত্যেক জেলেকে এক মাস করে বিনাশ্রম কারাদণ্ডের রায় দেন।
ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ রফিকুল হক দণ্ড দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মা ইলিশ রক্ষায় প্রশাসনের তৎপরতা অব্যাহত থাকবে।
রামগতি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এটিএম আরিচুল হক জানান, দণ্ডপ্রাপ্তদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হবে।

Share Button

সর্বশেষ আপডেট



» সোনাইমুড়িতে এশিয়ান টিভির ৭ম বর্ষপূর্তি পালিত

» পাকিস্তান সফরে জাতীয় দলে ডাক পেলেন লক্ষ্মীপুরের ক্রিকেটার হাসান

» সোনাইমুড়ীতে শীতার্তদের পাশে প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারি জাহাঙ্গীর আলম

» ফেনীতেের আল্লাহ রাসুলের নাম খচিত ভাস্কর্য দৃষ্টি কেড়েছে সবার

» নোয়াখালী পল্লী বিদ্যুত সমিতির এলাকা পরিচালক ১ এর নির্বাচন স্থগিত করেছে আদালত

» নোয়াখালীর ৬ যুবকসহ সারদেশের ৩১ জনকে ফেরত পাঠালো আমেরিকা

» চাটখিলে ওয়াজে মিজানুর রহমান আযহারীর সমালোচনা করে বক্তব্য দিয়ে বিপাকে মুফতি আছেম

» কবিরহাটে ডিবির হাতে ১৫ জুয়াড়ি আটক

» সুবর্ণচরে স্কুল উদ্ধোধনে চেয়ারম্যানকে সভাপতি না করায় প্রধান শিক্ষককে লাঞ্চিত করলেন চেয়ারমান

» চাটখিলে স্কুল ছাত্রীদের যৌন হয়রানি পিয়নের, মুসলেকা নিয়ে সমাধান প্রধান শিক্ষক সভাপতির!

ফেইসবুকে প্রিয় নোয়াখালী

add pn
সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]
Desing & Developed BY Trust soft bd
ADS170638-2
,

নিষিদ্ধ সময়ে মেঘনায় মা ইলিশ শিকারের দায়ে ১৪ জেলের কারাদণ্ড

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি : নিষিদ্ধ সময়ে মেঘনা নদীতে ডিমওয়ালা মা ইলিশ শিকারের অপরাধে লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে ১৪ জেলেকে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। রোববার দুপুরে ভ্রাম্যমাণআদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ রফিকুল হক তাদেরকে এ দণ্ড দেন। এর আগে রোববার ভোর রাতে মেঘনা নদীর বিভিন্ন পয়েন্টে অভিযান চালিয়ে মাছধরার দু’টি নৌকা ও দুই হাজার মিটার জালসহ তাদেরকে আটক করা হয়।
দ-প্রাপ্ত জেলেরা হচ্ছেন-ভোলার তজুমুদ্দিন এলাকার মো. ইলিয়াস (৪০), মো. সিরাজ (৩৮), মো. নোমান (২০), মো. নাজিম (৩৬), মো. আইয়ুব (২৭), নুরে আলম (৪৫), মো. মিজান (২৯), মো. মিরাজ (২০), মো. রিয়াজ (২৩), মো. শাহীন (১৮), একই জেলার লালমোহন এলাকার মো. লোকমান (৪০), মো. ইউনুছ (৩২), মো. মনির (২০) ও নোয়াখালীর সুবর্ণচর এলাকার মো. ইসমাইল (৩২)।
উপজেলা মৎস্য বিভাগ সূত্রে জানা যায়, জাতীয় মাছ ইলিশের ভরা প্রজনন মৌসুমে ডিমওয়ালা মা ইলিশ সংরক্ষণের লক্ষে সরকার ৭ অক্টোবর থেকে ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত মেঘনা নদীর বিভিন্ন অববাহিকায় সব ধরনের মাছধরার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেন। ওই ২২দিন নদীতে সব ধরনের মাছধরা নিষিদ্ধ করার পাশাপাশি ইলিশ ক্রয়-বিক্রয়, বাজারজাতকরণ, সংরক্ষণ এবং পরিবহনও নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়। এ নিষেধাজ্ঞা বাস্তবায়নে রোববার ভোর রাতে মেঘনা নদীর উপজেলার বিভিন্ন পয়েন্টে উপজেলা প্রশাসন অভিযান পরিচালনা করেন। ওই সময় নদীতে মাছ শিকারকালে দু’টি নৌকা ও দুই হাজার মিটার জালসহ ১৪ জেলেকে হাতেনাতে আটক করা হয়। পরে তাদেরকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করা হলে বিচারক প্রত্যেক জেলেকে এক মাস করে বিনাশ্রম কারাদণ্ডের রায় দেন।
ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ রফিকুল হক দণ্ড দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মা ইলিশ রক্ষায় প্রশাসনের তৎপরতা অব্যাহত থাকবে।
রামগতি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এটিএম আরিচুল হক জানান, দণ্ডপ্রাপ্তদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হবে।

Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



web-ad

সর্বশেষ আপডেট





সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]

Developed BY Trustsoftbd