ADS170638-2

অভিনেতা মাহফুজের গ্রামের বাড়ি রামগঞ্জে সন্ত্রাসী হামলা

প্রিয় নোয়াখালী ডেস্কঃ

জনপ্রিয় অভিনেতা মাহফুজ আহমেদ-এর লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জে গ্রামের বাড়িতে হামলা করেছে দুর্বৃত্তরা। হঠাৎ এমন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটায় আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে তার পরিবার। এরই মধ্যে পুলিশের কাছে জানানো হয়েছে বিষয়টি। হামলাকারীদের খুঁজছে পুলিশ। ঢাকায় সাংবাদিকদের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন এই অভিনেতা নিজেই।
মাহফুজ আহমেদ বলেন, ‘আমার গ্রামের বাড়িতে গতকাল সন্ত্রাসীরা হামলা করে। দরজা জানালা ভাঙচুর করেছে, ককটেল ফাটিয়েছে। কে বা কারা করেছে আমরা জানি না। হামলা চলাকালীন সময়ে বাড়িতে আমার বৃদ্ধা মা ছিলেন, আমার ছোট ভাই ও তার ছোট ছেলে ছিল। আমার স্ত্রীও ছিল। খুবই আশঙ্কা জনক অবস্থা বিরাজ করছিল তখন। আমি কোনো ভাবেই এটা মেনে নিতে পারছি না। আমি পুলিশকে জানিয়েছি। স্থানীয় অসি, এসপি সবাইকে জানিয়েছি। তারা আমাকে নিশ্চয়তা দিয়েছে, এটা আর কখনো হবে না। যারা করেছে তাদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির ব্যবস্থা করবে।’
আওয়ামী লিগের নির্বাচনী প্রচারণায় আপনাকে দেখা গেছে। আপনি ভিডিও বার্তায় নৌকা মার্কার জন্য ভোট চেয়েছেন। কোন রাজনৈতিক হামলা কী এটা? উত্তরে মাহফুজ আহমেদ বলেন,‘কোন কারণে যে এই হামলা এটা তো বুঝতে পারছি না। এটা পুলিশই খুঁজে বের করবেন।’
নিজের রাজনৈতিক মতাদর্শ প্রসঙ্গে মাহফুজ আহমেদ বললেন, ‘আমার জীবনে এমন ঘটনা আগে ঘটে নাই। আমি কোনো দলের কর্মীও না। কোনো দলের কর্মী হয়ে কাজ করিনি, করবোও না। তবে ব্যক্তিগত ভাবে শিল্পীদের প্রতি, শিল্পের প্রতি, নাটক সিনেমার প্রতি, সাহিত্যের প্রতি শেখ হাসিনার যে মমতা, ভালোবাসা, খোঁজ খবর রাখা, এটা আমাকে মুগ্ধ করে। এই মুগ্ধতার কারণে উনার প্রতি আমার ব্যক্তিগত দুর্বলতা আছে।’
মাহফুজ আরও বলেন, ‘মনে আছে হয় তো। একটা ছোট বাচ্চা প্রধানমন্ত্রীর কাছে, এলাকায় ব্রিজ নির্মাণের অনুরোধ জানিয়ে একটা চিঠি লিখেছিল। সেই চিঠির উত্তরও উনি দিয়েছিলেন। শেখ হাসিনাকে পছন্দ করার এমন অনেক কারনই আছে। আরকটা কথা বলি, ব্যক্তিগত দুর্বলতা মানে কিন্ত দলীয় দুর্বলতা না। আমি কোনো দল করি না, করবোও না কখনো। আমি দলীয় রাজনীতি পছন্দ করি না। শিল্পীরা দলীয় রাজনীতি না করাই ভালো বলে আমি মনে করি।’
এদিকে সন্ত্রাসী বাহিনী কর্তৃক জনপ্রিয় অভিনেতা মাহফুজ আহমেদ-এর লক্ষ্মীপুরের গ্রামের বাড়িতে হামলার ঘটনায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

প্রসঙ্গত যে, মাহফুজের আরেক ভাই ড, মামুন আহমেদ।  তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক। ড,মামুন বিএনপি পন্থী বুদ্ধিজীবি হিসেবে পরিচিত এবং তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির  সাবেক নির্বাচিত সাধারন

মাহফুজের শ্বশুর সাবেক রাস্ট্রপতি জাপা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের ছোট ভাই সাবেক মন্ত্রী জি এম কাদের।

Share Button

সর্বশেষ আপডেট



» একুশে পদক প্রাপ্ত গান্ধী আশ্রমের ঝর্ণা ধরা চৌধুরী আর নেই

» জাতীয় কাব শিশু প্রতিযোগীতায় সারাদেশে সেরা চাটখিলের নোমানী

» ৩ ঘন্টায়ও নিজেকে এমবিবিএস ডাক্তার প্রমান করকে না পেরে জেলে গেলেন সেনবাগের মামুন

» রামগঞ্জে প্রতিবন্ধী যুবতীকে ধষর্ন করে অন্তঃসত্বা

» বেগমগঞ্জ দুটি অপহরণ ও ধর্ষন মামলা আসামী হকার জাকিরকে গ্রেপ্তারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

» দঃ আফ্রিকায় মসজিদের টাকা ছিনতাইঃ ডাকাতদের গ্রেফতারে পুরস্কারের ঘোষণা

» চাটখিলে মসজিদের ভেতরে শিশু বলাৎকার, মুয়াজ্জিন আটক

» রামগঞ্জে পুলিশ অফিসারের উদ্যোগে আলোকিত একই পরিবারের ৪ প্রতিবন্ধী

» চাটখিলে রক্তদাতা দিবসে খিলপাড়া ব্লাড ডোনেট ক্লাবের বর্ণাঢ্য সাইকেল শোভাযাত্রা

» নোয়াখালীতে আদালত থেকে হাতকড়াসহ দৌড়ে পালাল মাদক মামলার আসামী

ফেইসবুকে প্রিয় নোয়াখালী

add pn
সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]l.com
Desing & Developed BY Trust soft bd
ADS170638-2
,

অভিনেতা মাহফুজের গ্রামের বাড়ি রামগঞ্জে সন্ত্রাসী হামলা

প্রিয় নোয়াখালী ডেস্কঃ

জনপ্রিয় অভিনেতা মাহফুজ আহমেদ-এর লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জে গ্রামের বাড়িতে হামলা করেছে দুর্বৃত্তরা। হঠাৎ এমন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটায় আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে তার পরিবার। এরই মধ্যে পুলিশের কাছে জানানো হয়েছে বিষয়টি। হামলাকারীদের খুঁজছে পুলিশ। ঢাকায় সাংবাদিকদের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন এই অভিনেতা নিজেই।
মাহফুজ আহমেদ বলেন, ‘আমার গ্রামের বাড়িতে গতকাল সন্ত্রাসীরা হামলা করে। দরজা জানালা ভাঙচুর করেছে, ককটেল ফাটিয়েছে। কে বা কারা করেছে আমরা জানি না। হামলা চলাকালীন সময়ে বাড়িতে আমার বৃদ্ধা মা ছিলেন, আমার ছোট ভাই ও তার ছোট ছেলে ছিল। আমার স্ত্রীও ছিল। খুবই আশঙ্কা জনক অবস্থা বিরাজ করছিল তখন। আমি কোনো ভাবেই এটা মেনে নিতে পারছি না। আমি পুলিশকে জানিয়েছি। স্থানীয় অসি, এসপি সবাইকে জানিয়েছি। তারা আমাকে নিশ্চয়তা দিয়েছে, এটা আর কখনো হবে না। যারা করেছে তাদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির ব্যবস্থা করবে।’
আওয়ামী লিগের নির্বাচনী প্রচারণায় আপনাকে দেখা গেছে। আপনি ভিডিও বার্তায় নৌকা মার্কার জন্য ভোট চেয়েছেন। কোন রাজনৈতিক হামলা কী এটা? উত্তরে মাহফুজ আহমেদ বলেন,‘কোন কারণে যে এই হামলা এটা তো বুঝতে পারছি না। এটা পুলিশই খুঁজে বের করবেন।’
নিজের রাজনৈতিক মতাদর্শ প্রসঙ্গে মাহফুজ আহমেদ বললেন, ‘আমার জীবনে এমন ঘটনা আগে ঘটে নাই। আমি কোনো দলের কর্মীও না। কোনো দলের কর্মী হয়ে কাজ করিনি, করবোও না। তবে ব্যক্তিগত ভাবে শিল্পীদের প্রতি, শিল্পের প্রতি, নাটক সিনেমার প্রতি, সাহিত্যের প্রতি শেখ হাসিনার যে মমতা, ভালোবাসা, খোঁজ খবর রাখা, এটা আমাকে মুগ্ধ করে। এই মুগ্ধতার কারণে উনার প্রতি আমার ব্যক্তিগত দুর্বলতা আছে।’
মাহফুজ আরও বলেন, ‘মনে আছে হয় তো। একটা ছোট বাচ্চা প্রধানমন্ত্রীর কাছে, এলাকায় ব্রিজ নির্মাণের অনুরোধ জানিয়ে একটা চিঠি লিখেছিল। সেই চিঠির উত্তরও উনি দিয়েছিলেন। শেখ হাসিনাকে পছন্দ করার এমন অনেক কারনই আছে। আরকটা কথা বলি, ব্যক্তিগত দুর্বলতা মানে কিন্ত দলীয় দুর্বলতা না। আমি কোনো দল করি না, করবোও না কখনো। আমি দলীয় রাজনীতি পছন্দ করি না। শিল্পীরা দলীয় রাজনীতি না করাই ভালো বলে আমি মনে করি।’
এদিকে সন্ত্রাসী বাহিনী কর্তৃক জনপ্রিয় অভিনেতা মাহফুজ আহমেদ-এর লক্ষ্মীপুরের গ্রামের বাড়িতে হামলার ঘটনায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

প্রসঙ্গত যে, মাহফুজের আরেক ভাই ড, মামুন আহমেদ।  তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক। ড,মামুন বিএনপি পন্থী বুদ্ধিজীবি হিসেবে পরিচিত এবং তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির  সাবেক নির্বাচিত সাধারন

মাহফুজের শ্বশুর সাবেক রাস্ট্রপতি জাপা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের ছোট ভাই সাবেক মন্ত্রী জি এম কাদের।

Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



web-ad

সর্বশেষ আপডেট





সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]

Developed BY Trustsoftbd