কবিরহাটে আ,লীগ ও বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে ৪ গুলিবিদ্ধসহ আহত ৮

স্পেশাল করেসপন্ডেন্টঃ

নোয়াখালীর কবিরহাট উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কবিরহাট পৌরসভার জিরো পয়েন্টে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী কামরুন নাহার শিউলী ও স্বতন্ত্র প্রার্থী (আওয়ামী বিদ্রোহী) মো. আলা বক্স টিটু এর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ ও গোলাগুলির ঘটনা ঘটে।  এ সময় ৪জন গুলিবিদ্ধসহ  অন্তত ৮ জন আহত হয়েছেন।

গুলিবিদ্ধরা হলেন, ইব্রাহিম খলিল (৪০), জয়নাল আবেদিন (৩৫), মুন্সী বোবা (৩০) ও মো. হাসান (১৮) এবং আহতরা হলেন, রয়েল (৩২), ইকবাল হোসেন (৪২) ও শরীফ হোসেন (২৯)। গুলিবিদ্ধসহ আহতদেরকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডা: সৈয়দ মহিউদ্দিন আবদুল আজিম জানান, গুলিবিদ্ধদের মধ্যে জয়নাল আবেদিন এর অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায়, উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে।
কবিরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) টমাস বড়ুয়া জানান, সন্ধ্যা ৭ টায় কবিরহাট উত্তর বাজার থেকে নৌকা প্রার্থীর সমর্থনে একটি মিছিল নিয়ে জিরো পয়েন্টে পৌঁছলে, বিপরীত দিক থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আলা বক্স টিটু (আনারস মার্কা) এর সমর্থনে অন্য একটি মিছিল একই স্থানে মিলিত হলে উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয় ও পরে সংঘর্ষ বাঁধে। এ সময় কয়েক রাউন্ড গুলি হলে, ৪ জন গুলিবিদ্ধসহ ৮ জন আহত হয়। এ দিকে এ ঘটনায় এক পক্ষ অপর পক্ষকে দোষারোপ করছে।

পুলিশ সুপার মো. ইলিয়াছ শরীফ গোলাগুলির কথা স্বীকার করে জানান, নির্বাচনী প্রচারণাকে কেন্দ্র করে, দুই পক্ষের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থলে পুলিশ ,বিজিবিও র‌্যাব মোতায়েন করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রয়েছে।

এ দিকে সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহীন জানান, নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকরা এ হামলা করেছে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহমুদ নাসের জনি ঘটনাস্থল থেকৈ জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রয়েছে। বিপুল পরিমান পুলিশ বিজিবি ও র‌্যাব মোতায়েন করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ৫ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের চতুর্থ ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আগামী ৩১ মার্চ নোয়াখালীর কবিরহাট উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

 

 

 

Share Button

সর্বশেষ আপডেট



» রামগঞ্জে সরকারী সম্পত্তি জবর-দখল নিয়ে দুই গ্রুপ মুখোমুখি

» রামগঞ্জে বখাটে চাচার হাতধরে পালিয়েছে প্রবাসীর স্ত্রী মুন্নী

» সুবর্নচর ওয়াপদা যুবদলের সভাপতি হতে চান সৈকত

» বেগমগঞ্জে মানব পাচারকারী দলের নারী সদস্য আটক

» অসহায় মেয়ের নিজ খরছে বিয়ে দিলেন নোয়াখালীর পুলিশ সুপার আলমগীর হোসেন

» রামগঞ্জে সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেফতারের দাবীতে মানববন্ধন

» করোনাতে চাটখিল ও সোনাইমুড়ীতে ২জনের মৃত্যু

» রামগঞ্জে কিশোরীকে ধর্ষণ শেষে হত্যা, হত্যাকারীর ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন

» রামগঞ্জে ইডেনের ছাত্রী অন্তসত্তা গৃহবধু আয়নাকে হত্যার অভিযোগে স্বামী গ্রেফতার

» বেগমগঞ্জে বরকত উল্যাহ বুলুর বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত

ফেইসবুকে প্রিয় নোয়াখালী

সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]
Desing & Developed BY Trust soft bd
,

কবিরহাটে আ,লীগ ও বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে ৪ গুলিবিদ্ধসহ আহত ৮

স্পেশাল করেসপন্ডেন্টঃ

নোয়াখালীর কবিরহাট উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কবিরহাট পৌরসভার জিরো পয়েন্টে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী কামরুন নাহার শিউলী ও স্বতন্ত্র প্রার্থী (আওয়ামী বিদ্রোহী) মো. আলা বক্স টিটু এর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ ও গোলাগুলির ঘটনা ঘটে।  এ সময় ৪জন গুলিবিদ্ধসহ  অন্তত ৮ জন আহত হয়েছেন।

গুলিবিদ্ধরা হলেন, ইব্রাহিম খলিল (৪০), জয়নাল আবেদিন (৩৫), মুন্সী বোবা (৩০) ও মো. হাসান (১৮) এবং আহতরা হলেন, রয়েল (৩২), ইকবাল হোসেন (৪২) ও শরীফ হোসেন (২৯)। গুলিবিদ্ধসহ আহতদেরকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডা: সৈয়দ মহিউদ্দিন আবদুল আজিম জানান, গুলিবিদ্ধদের মধ্যে জয়নাল আবেদিন এর অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায়, উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে।
কবিরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) টমাস বড়ুয়া জানান, সন্ধ্যা ৭ টায় কবিরহাট উত্তর বাজার থেকে নৌকা প্রার্থীর সমর্থনে একটি মিছিল নিয়ে জিরো পয়েন্টে পৌঁছলে, বিপরীত দিক থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আলা বক্স টিটু (আনারস মার্কা) এর সমর্থনে অন্য একটি মিছিল একই স্থানে মিলিত হলে উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয় ও পরে সংঘর্ষ বাঁধে। এ সময় কয়েক রাউন্ড গুলি হলে, ৪ জন গুলিবিদ্ধসহ ৮ জন আহত হয়। এ দিকে এ ঘটনায় এক পক্ষ অপর পক্ষকে দোষারোপ করছে।

পুলিশ সুপার মো. ইলিয়াছ শরীফ গোলাগুলির কথা স্বীকার করে জানান, নির্বাচনী প্রচারণাকে কেন্দ্র করে, দুই পক্ষের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থলে পুলিশ ,বিজিবিও র‌্যাব মোতায়েন করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রয়েছে।

এ দিকে সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহীন জানান, নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকরা এ হামলা করেছে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহমুদ নাসের জনি ঘটনাস্থল থেকৈ জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রয়েছে। বিপুল পরিমান পুলিশ বিজিবি ও র‌্যাব মোতায়েন করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ৫ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের চতুর্থ ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আগামী ৩১ মার্চ নোয়াখালীর কবিরহাট উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

 

 

 

Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



web-ad

সর্বশেষ আপডেট





সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]

Developed BY Trustsoftbd