ADS170638-2

ভিসেরা প্রতিবেদন, হার্ট অ্যাটাকেই ডা. রাজনের মৃত্যু

স্টাফ করেসপন্ডেন্টঃ
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) ম্যাক্সিলোফেসিয়াল সার্জারি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. রাজন কর্মকারের মৃত্যুর কারণ হার্ট অ্যাটাক। ভিসেরা পরীক্ষার প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে। বৃহস্পতিবার, ৯ মে এ কথা জানিয়েছেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডা. সেলিম রেজা। ডা. রাজনের মরদেহের ভিসেরা প্রতিবেদন হাতে পেয়ে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন তিনি।
তিনি বলেন, ‘ভিসেরা রিপোর্টে আমরা যেটা পেয়েছি এটি তার (ডা. রাজন) কার্ডিওমায়োপ্যাথি। স্বাভাবিক মৃত্যু।’
এ প্রসঙ্গে সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. উত্তম কুমার বড়ুয়া বলেন, ‘আমার বিভাগীয় প্রধান আমাকে জানিয়েছেন তার মায়োকার্ডিয়াল ইনফেকশনে মৃত্যু হয়েছে, যেটাকে আমরা হার্ট অ্যাটাক বলি।’
অবশেষে কেমিক্যাল এ্যানালাইসিস ও হিস্টোপ্যাথলজিক্যাল রিপোর্টের চূড়ান্ত ফল পাওয়ার পরে প্রমাণ হলো হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়েই ডা. রাজন কর্মকারের মৃত্যু হয়েছে। এদিকে জামাতার অকাল মৃত্যুতে খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার ও তার পুরো পরিবার যখন গভীর শোকাহত তখন মহল বিশেষ ডা. রাজনের স্বাবাবিক মৃত্যুকে নিয়ে জল ঘোলা করছে মহলটি।
তারা খাদ্যমন্ত্রী ও তার পরিবারকে হেয় প্রতিপন্ন করতে ডা. রাজনের মৃত্যুকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার চেষ্ঠা করে। চক্রটি ষড়যন্ত্র করে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নেতিবাচক সংবাদ প্রচার করে। তখন বেশ কিছু প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায়ও এ নিয়ে কিছু নেতিবাচক সংবাদ প্রকাশ হয়।
উল্লেখ্য, ১৬ মার্চ রাত ৩টা ৪৫ মিনিটের দিকে ডা. রাজন কর্মকার হঠাৎ করেই হৃদরোগে আক্রান্ত হলে তাকে দ্রæত রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এ বিষয়ে স্কয়ার হাসপাতালের জারুরি বিভাগের চিকিৎসক আসাদুজ্জামান জানান, রাত পৌনে ৪ টার দিকে পরিবারের সদস্যরা ডা. রাজনকে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। তাকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার পর লাইফের কোনো সাইন পাওয়া যায়নি। তার শরীরে কোনো জখমের চিহ্ন ছিল না। পরে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

Share Button

সর্বশেষ আপডেট



» চাটখিল দলিল লিখক সমিতির সভাপতি দুলাল, সা: সম্পাদক স্বপন পাটোয়ারী

» লক্ষ্মীপুরে যুগান্তরের সাংবাদিককে ইউপি চেয়ারম্যানের মারধর প্রাণনাশের হুমকি

» সংবাদকর্মী সজিবের কেন এই অভিমানী প্রস্তান!

» ফেসবুক গ্রুপ নোয়াখালী রয়েল ড্রিস্টিকের উদ্যোগে মাদ্রাসা ছাত্রদের সম্মানে ইফতার ও ঈদ সামগ্রী বিতরন

» সুবর্ণচরের বধুগঞ্জে স্টুডেন্টস ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশনের ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত “

» বেগমগঞ্জে গৃহবধূকে গণধর্ষণ, অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার-২

» খিলপাড়া ব্লাড ডোনেট ক্লাবের আয়োজনে ইফতার অনুষ্ঠিত

» যদি শিরোনাম হয় দক্ষিণ আফ্রিকা!

» রামগতিতে ব্যবসায়ীদের নিয়ে “জামায়াতে ইসলামী”র ইফতার!

» চাটখিলে ধান সংগ্রহ উদ্বোধন করলেন ইউএনও দিদারুল আলম

ফেইসবুকে প্রিয় নোয়াখালী

add pn
সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]
Desing & Developed BY Trust soft bd
ADS170638-2
,

ভিসেরা প্রতিবেদন, হার্ট অ্যাটাকেই ডা. রাজনের মৃত্যু

স্টাফ করেসপন্ডেন্টঃ
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) ম্যাক্সিলোফেসিয়াল সার্জারি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. রাজন কর্মকারের মৃত্যুর কারণ হার্ট অ্যাটাক। ভিসেরা পরীক্ষার প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে। বৃহস্পতিবার, ৯ মে এ কথা জানিয়েছেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডা. সেলিম রেজা। ডা. রাজনের মরদেহের ভিসেরা প্রতিবেদন হাতে পেয়ে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন তিনি।
তিনি বলেন, ‘ভিসেরা রিপোর্টে আমরা যেটা পেয়েছি এটি তার (ডা. রাজন) কার্ডিওমায়োপ্যাথি। স্বাভাবিক মৃত্যু।’
এ প্রসঙ্গে সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. উত্তম কুমার বড়ুয়া বলেন, ‘আমার বিভাগীয় প্রধান আমাকে জানিয়েছেন তার মায়োকার্ডিয়াল ইনফেকশনে মৃত্যু হয়েছে, যেটাকে আমরা হার্ট অ্যাটাক বলি।’
অবশেষে কেমিক্যাল এ্যানালাইসিস ও হিস্টোপ্যাথলজিক্যাল রিপোর্টের চূড়ান্ত ফল পাওয়ার পরে প্রমাণ হলো হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়েই ডা. রাজন কর্মকারের মৃত্যু হয়েছে। এদিকে জামাতার অকাল মৃত্যুতে খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার ও তার পুরো পরিবার যখন গভীর শোকাহত তখন মহল বিশেষ ডা. রাজনের স্বাবাবিক মৃত্যুকে নিয়ে জল ঘোলা করছে মহলটি।
তারা খাদ্যমন্ত্রী ও তার পরিবারকে হেয় প্রতিপন্ন করতে ডা. রাজনের মৃত্যুকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার চেষ্ঠা করে। চক্রটি ষড়যন্ত্র করে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নেতিবাচক সংবাদ প্রচার করে। তখন বেশ কিছু প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায়ও এ নিয়ে কিছু নেতিবাচক সংবাদ প্রকাশ হয়।
উল্লেখ্য, ১৬ মার্চ রাত ৩টা ৪৫ মিনিটের দিকে ডা. রাজন কর্মকার হঠাৎ করেই হৃদরোগে আক্রান্ত হলে তাকে দ্রæত রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এ বিষয়ে স্কয়ার হাসপাতালের জারুরি বিভাগের চিকিৎসক আসাদুজ্জামান জানান, রাত পৌনে ৪ টার দিকে পরিবারের সদস্যরা ডা. রাজনকে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। তাকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার পর লাইফের কোনো সাইন পাওয়া যায়নি। তার শরীরে কোনো জখমের চিহ্ন ছিল না। পরে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



web-ad

সর্বশেষ আপডেট





সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]

Developed BY Trustsoftbd