ADS170638-2

হামর্দদের এমডি ইউছুপ হারুনের বিরুদ্ধে অন্যের স্ত্রীকে ভাগিয়ে নেয়ার অভিযোগ

প্রিয় নোয়াখালী ডেস্কঃ

হামদর্দ ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. ইউসুফ হারুন ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক গৃহবধূকে ভাগিয়ে নেয়ার অভিযোগে লক্ষ্মীপুর আদালতে মামলা করা হয়েছে।
এ মামলায় গৃহবধূ কামরুন নাহার পলিনকেও আসামি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে গৃহবধূর স্বামী নাজিম উদ্দিন রিপন বাদী হয়ে লক্ষ্মীপুর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এ মামলা করেন।
সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আবদুল কাদেরের আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে নোয়াখালী পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। বাদীপক্ষের আইনজীবী মোছাদ্দেক হোসেন চৌধুরী সবুজ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
জানা গেছে, কামরুন নাহার পলিন হামদর্দ ফাউন্ডেশন পরিচালিত লক্ষ্মীপুর সদরের দত্তপাড়া রৌশন জাহান ইস্টার্ন মেডিকেল কলেজের (ইউনানি) সহকারী অধ্যাপক ছিলেন। ২২ এপ্রিল ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে কলেজ থেকে অবসরে যাওয়ার আবেদন করেন তিনি।
মামলার বাদী নাজিম উদ্দিন রিপন বলেন, আমার স্ত্রীর পলিনের সঙ্গে হামদর্দ ফাউন্ডেশনের এমডি ও জামায়াত নেতা ইউসুফ হারুনের পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক ছিল। ১৫ এপ্রিল বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে আমার স্ত্রীকে ভাগিয়ে নিয়ে যান ইউসুফ হারুন। তাকে ফিরিয়ে আনতে মোবাইল ফোনে কল করলে হারুন আমাকে হত্যাসহ মিথ্যা মামলা জড়িয়ে দেয়ার হুমকি দেন।
মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ২০১৭ সালে বিয়ের পর থেকে বাদী রিপন স্ত্রী পলিনকে নিয়ে লক্ষ্মীপুর পৌরসভার দক্ষিণ মজুপুর এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন। পরবর্তীতে হামদর্দ ফাউন্ডেশনের এমডি ইউসুফ হারুনের সঙ্গে স্ত্রী পলিনের পরকীয়া প্রেমের সম্পর্কের বিষয়টি আঁচ করতে পারেন রিপন। ১২ এপ্রিল নিজের বাসায় স্ত্রী পলিনের সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় হারুনকে দেখে চিৎকার করেন রিপন। পরে আশপাশের লোকজন এসে তাদেরকে হাতেনাতে আটক করেন।
এরপর ১৫ এপ্রিল বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে পলিনকে ভাগিয়ে নিয়ে যান হারুন। এ সময় দুই লাখ টাকাসহ মূল্যবান স্বর্ণালঙ্কার নিয়ে যায় পলিন।

নিউজ ক্রেডিটঃ জাগো নিউজ।

Share Button

সর্বশেষ আপডেট



» একুশে পদক প্রাপ্ত গান্ধী আশ্রমের ঝর্ণা ধরা চৌধুরী আর নেই

» জাতীয় কাব শিশু প্রতিযোগীতায় সারাদেশে সেরা চাটখিলের নোমানী

» ৩ ঘন্টায়ও নিজেকে এমবিবিএস ডাক্তার প্রমান করকে না পেরে জেলে গেলেন সেনবাগের মামুন

» রামগঞ্জে প্রতিবন্ধী যুবতীকে ধষর্ন করে অন্তঃসত্বা

» বেগমগঞ্জ দুটি অপহরণ ও ধর্ষন মামলা আসামী হকার জাকিরকে গ্রেপ্তারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

» দঃ আফ্রিকায় মসজিদের টাকা ছিনতাইঃ ডাকাতদের গ্রেফতারে পুরস্কারের ঘোষণা

» চাটখিলে মসজিদের ভেতরে শিশু বলাৎকার, মুয়াজ্জিন আটক

» রামগঞ্জে পুলিশ অফিসারের উদ্যোগে আলোকিত একই পরিবারের ৪ প্রতিবন্ধী

» চাটখিলে রক্তদাতা দিবসে খিলপাড়া ব্লাড ডোনেট ক্লাবের বর্ণাঢ্য সাইকেল শোভাযাত্রা

» নোয়াখালীতে আদালত থেকে হাতকড়াসহ দৌড়ে পালাল মাদক মামলার আসামী

ফেইসবুকে প্রিয় নোয়াখালী

add pn
সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]
Desing & Developed BY Trust soft bd
ADS170638-2
,

হামর্দদের এমডি ইউছুপ হারুনের বিরুদ্ধে অন্যের স্ত্রীকে ভাগিয়ে নেয়ার অভিযোগ

প্রিয় নোয়াখালী ডেস্কঃ

হামদর্দ ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. ইউসুফ হারুন ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক গৃহবধূকে ভাগিয়ে নেয়ার অভিযোগে লক্ষ্মীপুর আদালতে মামলা করা হয়েছে।
এ মামলায় গৃহবধূ কামরুন নাহার পলিনকেও আসামি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে গৃহবধূর স্বামী নাজিম উদ্দিন রিপন বাদী হয়ে লক্ষ্মীপুর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এ মামলা করেন।
সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আবদুল কাদেরের আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে নোয়াখালী পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। বাদীপক্ষের আইনজীবী মোছাদ্দেক হোসেন চৌধুরী সবুজ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
জানা গেছে, কামরুন নাহার পলিন হামদর্দ ফাউন্ডেশন পরিচালিত লক্ষ্মীপুর সদরের দত্তপাড়া রৌশন জাহান ইস্টার্ন মেডিকেল কলেজের (ইউনানি) সহকারী অধ্যাপক ছিলেন। ২২ এপ্রিল ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে কলেজ থেকে অবসরে যাওয়ার আবেদন করেন তিনি।
মামলার বাদী নাজিম উদ্দিন রিপন বলেন, আমার স্ত্রীর পলিনের সঙ্গে হামদর্দ ফাউন্ডেশনের এমডি ও জামায়াত নেতা ইউসুফ হারুনের পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক ছিল। ১৫ এপ্রিল বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে আমার স্ত্রীকে ভাগিয়ে নিয়ে যান ইউসুফ হারুন। তাকে ফিরিয়ে আনতে মোবাইল ফোনে কল করলে হারুন আমাকে হত্যাসহ মিথ্যা মামলা জড়িয়ে দেয়ার হুমকি দেন।
মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ২০১৭ সালে বিয়ের পর থেকে বাদী রিপন স্ত্রী পলিনকে নিয়ে লক্ষ্মীপুর পৌরসভার দক্ষিণ মজুপুর এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন। পরবর্তীতে হামদর্দ ফাউন্ডেশনের এমডি ইউসুফ হারুনের সঙ্গে স্ত্রী পলিনের পরকীয়া প্রেমের সম্পর্কের বিষয়টি আঁচ করতে পারেন রিপন। ১২ এপ্রিল নিজের বাসায় স্ত্রী পলিনের সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় হারুনকে দেখে চিৎকার করেন রিপন। পরে আশপাশের লোকজন এসে তাদেরকে হাতেনাতে আটক করেন।
এরপর ১৫ এপ্রিল বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে পলিনকে ভাগিয়ে নিয়ে যান হারুন। এ সময় দুই লাখ টাকাসহ মূল্যবান স্বর্ণালঙ্কার নিয়ে যায় পলিন।

নিউজ ক্রেডিটঃ জাগো নিউজ।

Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



web-ad

সর্বশেষ আপডেট





সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]

Developed BY Trustsoftbd