ADS170638-2

বিবাদমান পুকুরের মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে হয়রানীমূলক মামলার অভিযোগ

প্রিয় নোয়াখালী ডেস্কঃ

সোনাইমুড়ী উপজেলার পতিশ গ্রামে সম্পত্তি বিরোধের জের ধরে ওয়াশিদের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আংশকা দেখা দিয়েছে। ইতিমধ্যে পুকুরের মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে অভিযোগ পাল্টা অভিযোগ দিয়ে প্রতিপক্ষকে হয়রানী শুরু হয়েছে। স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা যায়, সোনাইমুড়ী উপজেলার ৩৪নং পতিশ মৌজায় জেলাজরিফী ৮৮ ও এমআরআর ৯৫নং খতিয়ানের কতেক সম্পত্তি নিয়ে মৃত আবদুল হালিম এর ওয়ারিশগণের সাথে মৃত লাল মিয়া, আজহার মিয়া ও আবদুল মন্নান এর ওয়ারিশগণের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ মামলা মোকর্দমা চলে আসছে। এরই মধ্যে গত ১৭ জুন তারিখে পুকুরে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের মধ্যে বিরোধ চরমে যায়। মৃত লাল মিয়ার পুত্র লোকমান হোসেন জানায় বিরোধীয় পুকুরে আগের দিন তাদের প্রতিপক্ষ সোহেল লোকজন নিয়ে জোরপূর্বক মাছ ধরে নেয়। পরদিন লোকমান হেসেন গং মাছ ধরতে নামলে সোহেল সন্ত্রাসী দিয়ে বাধা দেয়। দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। ঘটনার খবর পেয়ে সোনাইমুড়ী থানার এসআই ফারুক ঘটনাস্থলে গিয়ে সোহেলের ভাগিনা সুমনকে দায়িত্ব দেয় মাছগুলো বিক্রি করে টাকা থানায় জমা দিতে। সেই মোতাবেক মাছ বিক্রি করে সুমন ২৮ হাজার টাকা থানায় জমা দেয়। এরমধ্যে প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে কে বা কারা পুকুরে বিশ দেয় ও মাছ লুটের মিথ্যা অভিযোগ এনে সোহেল বিজ্ঞ বিচারক ম্যাজিষ্ট্রেট ৬নং আমলী আদালত নোয়াখালীতে পিটিশন মামলা দেয়। বিজ্ঞ আদালত বিষয়টি তদন্ত করে প্রতিবেদন দেয়ার জন্য সোনাইমুড়ী উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছে।

Share Button

সর্বশেষ আপডেট



» সোনাইমুড়ীর আ,লীগ নেতা স্বপনকে গ্রেফতার নিয়ে ধুম্রজাল

» চেয়ারম্যান-মেম্বারের শিক্ষাগত যোগ্যতা নির্ধারণ নিয়ে ‘গুজব’

» রামগঞ্জে এলডিপির সভাপতি সম্পাদকের বিএনপিতে যোগদান

» ফেনীতে মাদক বিক্রেতার বাড়ি চিহ্নিত করণে সাইনবোর্ড ফেসবুকে ভাইরাল

» সোনাইমুড়ীর ছাত্রলীগ নেতা সুজনকে গ্রেফতারে মিশ্র প্রতিক্রিয়া

» সোনাইমুড়ীতে ফজর পড়ে বের হয়েই মুসুল্লিরা দেখতে পেলেন খালে ভাসছে লাশ!

» দক্ষিণ আফ্রিকায় যাবার পথে নোয়াখালীর ২ আপন ভাইয়ের মৃত্যু

» সোনাইমুড়ী থানায় আ,লীগের সমাঝোতা বৈঠকে ২ গ্রুপের সংঘর্ষ গুলি ওসিসহ আহত ১২

» লক্ষ্মীপুরে প্রাইভেট পড়তে গিয়ে শিক্ষকের শ্লীলতাহানির শিকার ছাত্রী

» রামগতির চরগাজীতে জমির মালিককে প্রকাশ্যে হত্যার চেষ্টা

ফেইসবুকে প্রিয় নোয়াখালী

add pn
সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]
Desing & Developed BY Trust soft bd
ADS170638-2
,

বিবাদমান পুকুরের মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে হয়রানীমূলক মামলার অভিযোগ

প্রিয় নোয়াখালী ডেস্কঃ

সোনাইমুড়ী উপজেলার পতিশ গ্রামে সম্পত্তি বিরোধের জের ধরে ওয়াশিদের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আংশকা দেখা দিয়েছে। ইতিমধ্যে পুকুরের মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে অভিযোগ পাল্টা অভিযোগ দিয়ে প্রতিপক্ষকে হয়রানী শুরু হয়েছে। স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা যায়, সোনাইমুড়ী উপজেলার ৩৪নং পতিশ মৌজায় জেলাজরিফী ৮৮ ও এমআরআর ৯৫নং খতিয়ানের কতেক সম্পত্তি নিয়ে মৃত আবদুল হালিম এর ওয়ারিশগণের সাথে মৃত লাল মিয়া, আজহার মিয়া ও আবদুল মন্নান এর ওয়ারিশগণের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ মামলা মোকর্দমা চলে আসছে। এরই মধ্যে গত ১৭ জুন তারিখে পুকুরে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের মধ্যে বিরোধ চরমে যায়। মৃত লাল মিয়ার পুত্র লোকমান হোসেন জানায় বিরোধীয় পুকুরে আগের দিন তাদের প্রতিপক্ষ সোহেল লোকজন নিয়ে জোরপূর্বক মাছ ধরে নেয়। পরদিন লোকমান হেসেন গং মাছ ধরতে নামলে সোহেল সন্ত্রাসী দিয়ে বাধা দেয়। দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। ঘটনার খবর পেয়ে সোনাইমুড়ী থানার এসআই ফারুক ঘটনাস্থলে গিয়ে সোহেলের ভাগিনা সুমনকে দায়িত্ব দেয় মাছগুলো বিক্রি করে টাকা থানায় জমা দিতে। সেই মোতাবেক মাছ বিক্রি করে সুমন ২৮ হাজার টাকা থানায় জমা দেয়। এরমধ্যে প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে কে বা কারা পুকুরে বিশ দেয় ও মাছ লুটের মিথ্যা অভিযোগ এনে সোহেল বিজ্ঞ বিচারক ম্যাজিষ্ট্রেট ৬নং আমলী আদালত নোয়াখালীতে পিটিশন মামলা দেয়। বিজ্ঞ আদালত বিষয়টি তদন্ত করে প্রতিবেদন দেয়ার জন্য সোনাইমুড়ী উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছে।

Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



web-ad

সর্বশেষ আপডেট





সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]

Developed BY Trustsoftbd