ADS170638-2

সোনাগাজীতে নয়ন বন্ড স্টাইলে হত্যার চেষ্টা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট:
সোনাগাজীর মতিগঞ্জ এলাকায় একটি গ্রাম্য সালিশ এর কথা কাটাকাটিকে কেন্দ্র করে গত ১৬ জুলাই রাত ৮ ঘটিকায় ওই এলাকার ভাদাদিয়া গ্রামের মোহাম্মদ হানিফের ছেলে আতিকুর রহমানকে শিপন এর উপর উপর বর্বর হামলা চালায় জিয়াউদ্দিন রাহাত নামের এক দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী । এই সন্ত্রাসী রাহাত দাবি করে আসছে তার অধীনে চার শত সন্ত্রাসী পালিত হয়ে আসছে। সে ভাদাদিয়া গ্রামের দফাদার বাড়ির আবু ইউসুফের ছেলে। এ সন্ত্রাসী রাহাত সম্পর্কে স্থানীয় লোকজন জানালেন, এরা পিতাপুত্র মিলে পরিবারের সবাই উচ্ছৃঙ্খল- সন্ত্রাসী চরিত্রের। এলাকাতে এদের অত্যাচারে গণমানুষ অতিষ্ঠ।

জানা গেছে,গত ১৬ জুলাই রাত ৮ ঘটিকায় এই আতিকুর রহমান শিপন স্থানীয় গ্রাম্য চা দোকান থেকে বাড়ি ফেরার পথে সন্ত্রাসী রাহাত রাস্তার পাশের ঝোপঝাড় থেকে বেরিয়ে এসে শিপনকে লাঠি দিয়ে অতর্কিতে বেধড়ক পেটাতে থাকে। এ সময় রাত ছিল ঘন অন্ধকার। শিপন বুঝতে পারছিল না কে তাকে এভাবে আঘাত করছে। এক পর্যায়ে সন্ত্রাসী রাহাত তার পিঠের পেছনে টি-শার্টের ভেতর লুকিয়ে রাখা কিরিচ দিয়ে তাকে কোপাতে উদ্যত হলে শিপন আত্ম চিৎকার দেয়। এতে পার্শ্ববর্তী দোকান ও বাড়ি ঘরের লোকজন এগিয়ে এসে শিপন কে এ সন্ত্রাসীর আক্রমণের কবল থেকে উদ্ধার করে।রাহাত কিরিচ দিয়ে তাকে কোপানোর জন্য উদ্যতকালে লোকজনের প্রতিরোধের মুখে শিপন প্রাণে বেঁচে যায়।

এ বিষয়ে শিপনের সাথে কথা বলে জানা যায়, রাহাতের শার্টের ভেতর থেকে লুকিয়ে রাখা ধারালো কিরিচ বের করে তাকে কোপাতে গেলে লোকজন রাহাতকে ধরে ফেলে। এ সুযোগে শিপন শিপন একটু পাশে সরে গেলে গেলে এ কোপ রাস্তার পাশের একটি বনজ গাছের উপর গিয়ে পড়ে,।এতে এই বনজ গাছটি দ্বিখণ্ডিত হয় বলে জানা যায়। উপস্থিত লোকজনের সাথে কথা বলে জানা যায়, রাহাতের কিরিচের কোপ শিপন এর গায়ে পড়লে শিপন কে বাঁচানো যেত না। এরপর আহত শিপনকে ফেনী সদর হাসপাতাল দুইদিন চিকিৎসাধীন রাখা হয়। তার ডান পা আঘাতের চোটে মারাত্মক জখম প্রাপ্ত হয়।তাছাড়া শরীরের নানা অংশ বুক পিঠ মারাত্মক জখম হয়।

এদিকে এ সন্ত্রাসী স্থানীয় প্রভাবশালী গডফাদাররা তাকে বাঁচাতে মরিয়া হয়ে ওঠে। ৪ নং মতিগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রবিউজ্জমান বাবু ও তার চাচাতো ভাই রাসেল মেম্বর ভুক্তভোগী শিপনের পরিবারকে স্থানীয়ভাবে সুবিচার করে দেয়ার আশ্বাস দিতে থাকে এবং কোন মামলা না করার অনুরোধ করতে থাকে। কিন্তু স্থানীয় এ প্রভাবশালী সমাজপতিরা ঘটনার ১০ দিন অতিবাহিত হয়ে গেলেও সুবিচার করেননি। সন্ত্রাসী রাহাত ঘটনার পর তিনদিন পর্যন্ত প্রকাশ্যে কিরিচ নিয়ে শিপন এর বাড়ির চারপাশে হুমকি দিয়ে ঘুরতে দেখা গেছে। সে প্রকাশ্যে শিপনকে হত্যা করার হুমকি দিয়ে যাচ্ছে।

ইতিমধ্যে দু’একবার শালিশ বৈঠক অনুষ্ঠিত হলেও সন্ত্রাসী রাহাতকে শালিসে হাজির করা যায়নি। স্থানীয় শালিস দরবারকে থোড়াই কেয়ার করে এই সন্ত্রাসী। জানা গেছে, সে একটি ব্যাডমিন্টন এর কভার প্যাকেটে প্রকাশ্যে ধারালো কারিচ কাঁধে ঝুলিয়ে ঘুরে বেড়ায়।

অবশেষে বিগত ২০ জুলাই তারিখে আতিকুর রহমান শিপন সোনাগাজী মড়েল থানায় এ বিষয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করে। এ বিষয়ে সোনাগাজী থানার উপ-পরিদর্শক নুর নবীর সাথে কথা বলে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত হওয়া গেছে। তাছাড়া এ বিষয়ে ৪ নং মতিগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রবিউজ্জামান বাবুর সাথে কথা বললে, তিনি কোন সুস্পষ্ট বক্তব্য না দিয়ে অবান্তর কথাবার্তা বলতে থাকেন। রাসেল মেম্বারের সাথে কথা বললে,সে ব্যস্ততার অজুহাতে কথা বলেননি। এ বিষয়ে জিয়াউদ্দিন রাহাতের সাথে কথা বললে, সে তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সম্পূর্ণ রূপে অস্বীকার করেন এবং শিপন এর বিরুদ্ধে উল্টা নানা ভিত্তিহীন অভিযোগ উত্থাপন করেন।

এ সন্ত্রাসী রাহাত সোনাগাজীর সন্ত্রাসের জনপদের প্রভাবশালী গডফাদারদের পালিত দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী। তার সন্ত্রাসের দোর্দণ্ড প্রতাপের প্রভাব এর মুখে নিরীহ জনগণ নিতান্তই অসহায়। শিপন এর উপর সাড়াশি আক্রমণের ঘটনাকে ধামাচাপা দিতে মরিয়া হয়ে উঠেছে স্থানীয় প্রভাবশালীরা।

Share Button

সর্বশেষ আপডেট



» ফেনীর সুমনের ১ ঘন্টা পরই দ: আফ্রিকাতে গুলি করে মারা হলো সোনাইমুড়ীর ফারুককে

» বেগমগঞ্জে আ,লীগের সম্মেলন শেষ, কমিটি ঘোষনা ৭ দিন পর

» দক্ষিণ আফ্রিকায় ডাকাতের গুলিতে ফেনীর সুমন নিহত

» সুবর্ণচরে ডোবায় যুবকের গলিত লাশ

» ৫ দফা দাবীতে চাটখিলে ফারিয়ার সমাবেশ ও মানববন্ধন

» ১৬ বছর পর হাতিয়া উপজেলা আ’লীগের সম্মেলনে সভাপতি মোহাম্মদ আলী

» ফেনীতে শিশু ধর্ষণের চেষ্টা কালে যুবককে পিটিয়ে থানায় সোপর্দ করলো জনতা

» চাটখিলের আ,লীগের নেতা ইয়াছিন করিমের বিয়েতে ম্পিকার এমপিসহ বিশিষ্ট জনেরা

» স্ত্রী হত্যকারী সেই স্বামীকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

» চাটখিলে আমেরিকা প্রবাসীর রহস্যজনক মৃত্যু

ফেইসবুকে প্রিয় নোয়াখালী

add pn
সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]
Desing & Developed BY Trust soft bd
ADS170638-2
,

সোনাগাজীতে নয়ন বন্ড স্টাইলে হত্যার চেষ্টা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট:
সোনাগাজীর মতিগঞ্জ এলাকায় একটি গ্রাম্য সালিশ এর কথা কাটাকাটিকে কেন্দ্র করে গত ১৬ জুলাই রাত ৮ ঘটিকায় ওই এলাকার ভাদাদিয়া গ্রামের মোহাম্মদ হানিফের ছেলে আতিকুর রহমানকে শিপন এর উপর উপর বর্বর হামলা চালায় জিয়াউদ্দিন রাহাত নামের এক দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী । এই সন্ত্রাসী রাহাত দাবি করে আসছে তার অধীনে চার শত সন্ত্রাসী পালিত হয়ে আসছে। সে ভাদাদিয়া গ্রামের দফাদার বাড়ির আবু ইউসুফের ছেলে। এ সন্ত্রাসী রাহাত সম্পর্কে স্থানীয় লোকজন জানালেন, এরা পিতাপুত্র মিলে পরিবারের সবাই উচ্ছৃঙ্খল- সন্ত্রাসী চরিত্রের। এলাকাতে এদের অত্যাচারে গণমানুষ অতিষ্ঠ।

জানা গেছে,গত ১৬ জুলাই রাত ৮ ঘটিকায় এই আতিকুর রহমান শিপন স্থানীয় গ্রাম্য চা দোকান থেকে বাড়ি ফেরার পথে সন্ত্রাসী রাহাত রাস্তার পাশের ঝোপঝাড় থেকে বেরিয়ে এসে শিপনকে লাঠি দিয়ে অতর্কিতে বেধড়ক পেটাতে থাকে। এ সময় রাত ছিল ঘন অন্ধকার। শিপন বুঝতে পারছিল না কে তাকে এভাবে আঘাত করছে। এক পর্যায়ে সন্ত্রাসী রাহাত তার পিঠের পেছনে টি-শার্টের ভেতর লুকিয়ে রাখা কিরিচ দিয়ে তাকে কোপাতে উদ্যত হলে শিপন আত্ম চিৎকার দেয়। এতে পার্শ্ববর্তী দোকান ও বাড়ি ঘরের লোকজন এগিয়ে এসে শিপন কে এ সন্ত্রাসীর আক্রমণের কবল থেকে উদ্ধার করে।রাহাত কিরিচ দিয়ে তাকে কোপানোর জন্য উদ্যতকালে লোকজনের প্রতিরোধের মুখে শিপন প্রাণে বেঁচে যায়।

এ বিষয়ে শিপনের সাথে কথা বলে জানা যায়, রাহাতের শার্টের ভেতর থেকে লুকিয়ে রাখা ধারালো কিরিচ বের করে তাকে কোপাতে গেলে লোকজন রাহাতকে ধরে ফেলে। এ সুযোগে শিপন শিপন একটু পাশে সরে গেলে গেলে এ কোপ রাস্তার পাশের একটি বনজ গাছের উপর গিয়ে পড়ে,।এতে এই বনজ গাছটি দ্বিখণ্ডিত হয় বলে জানা যায়। উপস্থিত লোকজনের সাথে কথা বলে জানা যায়, রাহাতের কিরিচের কোপ শিপন এর গায়ে পড়লে শিপন কে বাঁচানো যেত না। এরপর আহত শিপনকে ফেনী সদর হাসপাতাল দুইদিন চিকিৎসাধীন রাখা হয়। তার ডান পা আঘাতের চোটে মারাত্মক জখম প্রাপ্ত হয়।তাছাড়া শরীরের নানা অংশ বুক পিঠ মারাত্মক জখম হয়।

এদিকে এ সন্ত্রাসী স্থানীয় প্রভাবশালী গডফাদাররা তাকে বাঁচাতে মরিয়া হয়ে ওঠে। ৪ নং মতিগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রবিউজ্জমান বাবু ও তার চাচাতো ভাই রাসেল মেম্বর ভুক্তভোগী শিপনের পরিবারকে স্থানীয়ভাবে সুবিচার করে দেয়ার আশ্বাস দিতে থাকে এবং কোন মামলা না করার অনুরোধ করতে থাকে। কিন্তু স্থানীয় এ প্রভাবশালী সমাজপতিরা ঘটনার ১০ দিন অতিবাহিত হয়ে গেলেও সুবিচার করেননি। সন্ত্রাসী রাহাত ঘটনার পর তিনদিন পর্যন্ত প্রকাশ্যে কিরিচ নিয়ে শিপন এর বাড়ির চারপাশে হুমকি দিয়ে ঘুরতে দেখা গেছে। সে প্রকাশ্যে শিপনকে হত্যা করার হুমকি দিয়ে যাচ্ছে।

ইতিমধ্যে দু’একবার শালিশ বৈঠক অনুষ্ঠিত হলেও সন্ত্রাসী রাহাতকে শালিসে হাজির করা যায়নি। স্থানীয় শালিস দরবারকে থোড়াই কেয়ার করে এই সন্ত্রাসী। জানা গেছে, সে একটি ব্যাডমিন্টন এর কভার প্যাকেটে প্রকাশ্যে ধারালো কারিচ কাঁধে ঝুলিয়ে ঘুরে বেড়ায়।

অবশেষে বিগত ২০ জুলাই তারিখে আতিকুর রহমান শিপন সোনাগাজী মড়েল থানায় এ বিষয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করে। এ বিষয়ে সোনাগাজী থানার উপ-পরিদর্শক নুর নবীর সাথে কথা বলে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত হওয়া গেছে। তাছাড়া এ বিষয়ে ৪ নং মতিগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রবিউজ্জামান বাবুর সাথে কথা বললে, তিনি কোন সুস্পষ্ট বক্তব্য না দিয়ে অবান্তর কথাবার্তা বলতে থাকেন। রাসেল মেম্বারের সাথে কথা বললে,সে ব্যস্ততার অজুহাতে কথা বলেননি। এ বিষয়ে জিয়াউদ্দিন রাহাতের সাথে কথা বললে, সে তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সম্পূর্ণ রূপে অস্বীকার করেন এবং শিপন এর বিরুদ্ধে উল্টা নানা ভিত্তিহীন অভিযোগ উত্থাপন করেন।

এ সন্ত্রাসী রাহাত সোনাগাজীর সন্ত্রাসের জনপদের প্রভাবশালী গডফাদারদের পালিত দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী। তার সন্ত্রাসের দোর্দণ্ড প্রতাপের প্রভাব এর মুখে নিরীহ জনগণ নিতান্তই অসহায়। শিপন এর উপর সাড়াশি আক্রমণের ঘটনাকে ধামাচাপা দিতে মরিয়া হয়ে উঠেছে স্থানীয় প্রভাবশালীরা।

Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



web-ad

সর্বশেষ আপডেট





সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল [email protected]

Developed BY Trustsoftbd