দুই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে প্রোপাগান্ডা ছড়ানোর অভিযোগে হাবিবসহ ৩ দোসরের বিরুদ্ধে মামলা

 

 

স্টাফ করেসপন্ডেন্টঃ

জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল আলোকিত নোয়াখালীর সম্পাদক আলা উদ্দিন এবং নোয়াখালী বার্তা সম্পাদক ও স্যাটেলাইট উৎসব টিভি প্রতিনিধি সাংবাদিক সাইফুল ইসলাম রিয়াদ এর নামে ফেসবুকে মিথ্যা তথ্য দিয়ে সাজানো ভিডিও করে প্রচার করার অভিযোগে দৈনিক সংবাদের চাটখিল প্রতিনিধি হাবিবুর রহমানসহ তার ৩ দোসরের বিরুদ্ধে নোয়াখালী জেলা আদালতে মামলা হয়েছে। মামলার অন্য ২ জন আসামীরা হচ্ছেন চাটখিলের আলোচিত প্রতারক সামছুদ্দিন প্রকাশ শামিম ও বিউটি আক্তার। আলা উদ্দিন নিজে বাদী হয়ে নোয়াখালী আমলী আদালতে রোববার এই মামলা করেন।

 

মামলার বিবরনে জানাযায়, সংবাদ পত্রিকার চাটখিল প্রতিনিধি হাবিবুর রহমান ও তার ২ সহযোগী গত ১৫ জানুয়ারী চাটখিলে এক পঙ্গু রিকশা চালকের নামে ফেসবুকে টাকা চেয়ে আত্মসাৎ এমন একটি ফেইক ভিডিও তৈরী করে ফেসবুকে বিভিন্ন একাউন্ট তৈরী করে তা ছড়িয়ে দেয়। যাহা সম্পূর্ণ মিথ্যা এবং উদ্দেশ্য প্রণোদিত।

 

মামলার বাদী সাংবাদিক আলা উদ্দিন জানান, পঙ্গু রিকশা চালকের ঘটনাটি ২০১৬ সালের। যার সাথে আমার নুন্যতমও সম্পর্ক নেই। হাবিবুর রহমান ও শামীমের সাথে আমার ব্যক্তিগত শত্রুতার ঘটনাকে কেন্দ্র করে আমাকে সামাজিক ভাবে হেয় করার উদ্দেশ্য হাবিবুর রহমান আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা প্রচারণায় নেমেছে। এই ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করার জন্য আমি সর্বোচ্চভাবে আমি প্রস্তুত আছি। আমি মানহানী এবং আইসিটি আইনে হাবিব ও তার দোসরদের মোকাবেলা করবো।

 

সাংবাদিক সাইফুল ইসলাম রিয়াদ জানান, চার বছর পূর্বে আমি পঙ্গু রিকশাচালক জামাল হোসেনকে নিয়ে একটি প্রতিবেদন করি, তখন প্রতিবেদন দেখে অনেক হৃদয়বান ব্যক্তি আমার ও কয়েকজন সাংবাদিক সহ চাটখিলের জনপ্রতিনিধিদের সহযোগিতায় পঙ্গু রিকশাচালক জামাল হোসেনকে আর্থিক সাহায্য দিতে চায়। তখন চাটখিল পৌরসভার মেয়র মোহাম্মদ উল্লাহ পাটোয়ারী ও কয়েকজন কাউন্সিলর এবং চ্যানেল আইয়ের নোয়াখালী জেলা প্রতিনিধি সাংবাদিক আলাউদ্দিন শিবলু ভাই সহ বেশ কয়েকজন সাংবাদিকের উপস্থিতিতে ২০১৭ সালের ঈদের পূর্বে জামাল হোসেনকে দুই ধাপে তিনটি রিক্সা দেওয়া হয়, যার বাজার মূল্য প্রায় ২ লক্ষ টাকা।পরে আরো প্রায় এক লক্ষ টাকা জামাল হোসেন এর জন্য সাহায্য আসলে বিভিন্ন ধাপে নগদ ও দৈনন্দিন বাজার করার জন্য দিয়ে দেওয়া হয়। যাহার সংবাদ তিন বছর পূর্বেই বেশ কয়েকটি ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়াতে প্রচারিত হয়।

 

আর প্রতারক শামসুদ্দিন শামীম অন্যের ট্রাভেল এজেন্সি (রোজিনা এয়ার ট্রাভেলস এন্ড ট্যুরস) এর মালিক সেজে চাটখিল বাজারের পৌর শপিং কমপ্লেক্স এর নিচতলায় অফিস নিয়ে বসে। আমি সহ অনেকের সাথে প্রতারণা করে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়। আমি প্রতারক শামসুদ্দিন শামীমকে রোজিনা এয়ার ট্রাভেলস এর মালিক ভেবে আমার বাবা-মাকে হজে নেওয়ার জন্য সাত লক্ষ টাকা দিলে সে হজে নিতে ব্যর্থ হয়। পরে ইসলামী ব্যাংক চাটখিল শাখায় তার নিজের একাউন্টের সাত লক্ষ টাকার একটি চেক দেয় কিন্তু একাউন্টে টাকা না থাকায় আমি চেকটি ডিজঅনার করে আদালতের মাধ্যমে প্রতারক শামিমকে উকিল নোটিশ দিয়ে এক মাসের সময় দিয়ে আমার টাকা পরিশোধ করতে বলি। এক মাসের মধ্যে আমার পাওনা সাত লক্ষ টাকা পরিশোধ না করলে আদালতে মামলা করি যাহা বর্তমানে নোয়াখালী জেলা জজ আদালতে বিচারাধীন। আইনি প্রক্রিয়ায় প্রতারক শামসুদ্দিন শামীম আমার সাথে না পেরে সামাজিক ভাবে আমার মর্যাদা ক্ষুন্ন করার হীন প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে মিথ্যা ও বানোয়াট তথ্য দিয়ে ভিডিও তৈরি করে সোশ্যাল মিডিয়াতে আমিও সাংবাদিক আলাউদ্দিনের নামে অপপ্রচার চালাচ্ছে সেই কারণে কারণে আমিও আবারো ব্যক্তিগত ভাবে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

Share Button

সর্বশেষ আপডেট



» চাটখিলের পরকোটে ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থীর মোটর শোভাযাত্রা

» নোয়াখালী বিভাগ বাস্তবায়নের দাবীতে মানববন্ধন

» যারা ভোট ডাকাতি করে, জনগণের প্রতি তাদের দায়িত্ব-মমত্ব বোধ নেই: আ স ম রব  

»

» দক্ষিণ আফ্রিকায় কর্মচারীর হাতে নোয়াখালীর যুবক খুন

» পুজামন্ডপে পবিত্র কোরআন অবমানায় চাটখিলে বিক্ষোভ মিছিল

» চাটখিলে সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবীতে শত শত মানুষের বিক্ষোভ ও মানববন্ধন

» ছেলের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা, পালাতে সহযোগিতা করায় বাবা গ্রেফতার

» নোয়াখালীতে কারাগারে সেনবাগের বৃদ্ধ হাজতির মৃত্যু

» চাটখিলে নববধুর গলায় ফাঁস দেয়ার কারন যা বলছে স্থানিয়রা

ফেইসবুকে প্রিয় নোয়াখালী

সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল kanon.press@gmail.com
Desing & Developed BY Trust soft bd
,

দুই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে প্রোপাগান্ডা ছড়ানোর অভিযোগে হাবিবসহ ৩ দোসরের বিরুদ্ধে মামলা

 

 

স্টাফ করেসপন্ডেন্টঃ

জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল আলোকিত নোয়াখালীর সম্পাদক আলা উদ্দিন এবং নোয়াখালী বার্তা সম্পাদক ও স্যাটেলাইট উৎসব টিভি প্রতিনিধি সাংবাদিক সাইফুল ইসলাম রিয়াদ এর নামে ফেসবুকে মিথ্যা তথ্য দিয়ে সাজানো ভিডিও করে প্রচার করার অভিযোগে দৈনিক সংবাদের চাটখিল প্রতিনিধি হাবিবুর রহমানসহ তার ৩ দোসরের বিরুদ্ধে নোয়াখালী জেলা আদালতে মামলা হয়েছে। মামলার অন্য ২ জন আসামীরা হচ্ছেন চাটখিলের আলোচিত প্রতারক সামছুদ্দিন প্রকাশ শামিম ও বিউটি আক্তার। আলা উদ্দিন নিজে বাদী হয়ে নোয়াখালী আমলী আদালতে রোববার এই মামলা করেন।

 

মামলার বিবরনে জানাযায়, সংবাদ পত্রিকার চাটখিল প্রতিনিধি হাবিবুর রহমান ও তার ২ সহযোগী গত ১৫ জানুয়ারী চাটখিলে এক পঙ্গু রিকশা চালকের নামে ফেসবুকে টাকা চেয়ে আত্মসাৎ এমন একটি ফেইক ভিডিও তৈরী করে ফেসবুকে বিভিন্ন একাউন্ট তৈরী করে তা ছড়িয়ে দেয়। যাহা সম্পূর্ণ মিথ্যা এবং উদ্দেশ্য প্রণোদিত।

 

মামলার বাদী সাংবাদিক আলা উদ্দিন জানান, পঙ্গু রিকশা চালকের ঘটনাটি ২০১৬ সালের। যার সাথে আমার নুন্যতমও সম্পর্ক নেই। হাবিবুর রহমান ও শামীমের সাথে আমার ব্যক্তিগত শত্রুতার ঘটনাকে কেন্দ্র করে আমাকে সামাজিক ভাবে হেয় করার উদ্দেশ্য হাবিবুর রহমান আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা প্রচারণায় নেমেছে। এই ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করার জন্য আমি সর্বোচ্চভাবে আমি প্রস্তুত আছি। আমি মানহানী এবং আইসিটি আইনে হাবিব ও তার দোসরদের মোকাবেলা করবো।

 

সাংবাদিক সাইফুল ইসলাম রিয়াদ জানান, চার বছর পূর্বে আমি পঙ্গু রিকশাচালক জামাল হোসেনকে নিয়ে একটি প্রতিবেদন করি, তখন প্রতিবেদন দেখে অনেক হৃদয়বান ব্যক্তি আমার ও কয়েকজন সাংবাদিক সহ চাটখিলের জনপ্রতিনিধিদের সহযোগিতায় পঙ্গু রিকশাচালক জামাল হোসেনকে আর্থিক সাহায্য দিতে চায়। তখন চাটখিল পৌরসভার মেয়র মোহাম্মদ উল্লাহ পাটোয়ারী ও কয়েকজন কাউন্সিলর এবং চ্যানেল আইয়ের নোয়াখালী জেলা প্রতিনিধি সাংবাদিক আলাউদ্দিন শিবলু ভাই সহ বেশ কয়েকজন সাংবাদিকের উপস্থিতিতে ২০১৭ সালের ঈদের পূর্বে জামাল হোসেনকে দুই ধাপে তিনটি রিক্সা দেওয়া হয়, যার বাজার মূল্য প্রায় ২ লক্ষ টাকা।পরে আরো প্রায় এক লক্ষ টাকা জামাল হোসেন এর জন্য সাহায্য আসলে বিভিন্ন ধাপে নগদ ও দৈনন্দিন বাজার করার জন্য দিয়ে দেওয়া হয়। যাহার সংবাদ তিন বছর পূর্বেই বেশ কয়েকটি ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়াতে প্রচারিত হয়।

 

আর প্রতারক শামসুদ্দিন শামীম অন্যের ট্রাভেল এজেন্সি (রোজিনা এয়ার ট্রাভেলস এন্ড ট্যুরস) এর মালিক সেজে চাটখিল বাজারের পৌর শপিং কমপ্লেক্স এর নিচতলায় অফিস নিয়ে বসে। আমি সহ অনেকের সাথে প্রতারণা করে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়। আমি প্রতারক শামসুদ্দিন শামীমকে রোজিনা এয়ার ট্রাভেলস এর মালিক ভেবে আমার বাবা-মাকে হজে নেওয়ার জন্য সাত লক্ষ টাকা দিলে সে হজে নিতে ব্যর্থ হয়। পরে ইসলামী ব্যাংক চাটখিল শাখায় তার নিজের একাউন্টের সাত লক্ষ টাকার একটি চেক দেয় কিন্তু একাউন্টে টাকা না থাকায় আমি চেকটি ডিজঅনার করে আদালতের মাধ্যমে প্রতারক শামিমকে উকিল নোটিশ দিয়ে এক মাসের সময় দিয়ে আমার টাকা পরিশোধ করতে বলি। এক মাসের মধ্যে আমার পাওনা সাত লক্ষ টাকা পরিশোধ না করলে আদালতে মামলা করি যাহা বর্তমানে নোয়াখালী জেলা জজ আদালতে বিচারাধীন। আইনি প্রক্রিয়ায় প্রতারক শামসুদ্দিন শামীম আমার সাথে না পেরে সামাজিক ভাবে আমার মর্যাদা ক্ষুন্ন করার হীন প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে মিথ্যা ও বানোয়াট তথ্য দিয়ে ভিডিও তৈরি করে সোশ্যাল মিডিয়াতে আমিও সাংবাদিক আলাউদ্দিনের নামে অপপ্রচার চালাচ্ছে সেই কারণে কারণে আমিও আবারো ব্যক্তিগত ভাবে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

Share Button

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



web-ad

সর্বশেষ আপডেট





সম্পাদক ও প্রকাশক:: কামরুল ইসলাম কানন।
যোগাযোগ:: ০১৭১২৯৮৩৭৫১।
ইমেইল kanon.press@gmail.com

Developed BY Trustsoftbd