Dhaka ১২:২৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ০৬ জুন ২০২৪

চাটখিলে ব্যবসায়ীর ঘরের দরজা ভেঙ্গে স্বর্ণলংকার ও মালামাল লুট

  • আপডেট: ০৫:৩৬:১৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২
  • 666

স্টাফ করেসপন্ডেন্টঃ
নোয়াখালীর চাটখিলে ব্যবসায়ী ফজলুল হোসেনের বসত ঘরের দরজার তালা ভেঙ্গে স্বর্নালংকার ও নগট টাকাসহ ঘরের বিভিন্ন মালামাল লুটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার নোয়াখলা ইউনিয়নের সিংবাহুড়া গ্রামে। জানা যায়,ফজলু হোসেন চট্রগ্রামে ব্যবসা করে থাকেন। বাড়িতে থাকতেন তার মা।
এই ঘটনায় তার ছোট ভাই বেসরকারী একটা প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা মাহমুদ হোসেন মামুন বৃহস্পতিবার চাটখিল থানায় চুরির অভিযোগ এনে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, তাদের মা বাড়িতে থাকেন। বুধবার তিনি হঠাৎ অসুস্থ্য হয়ে পড়লে ঘর তালা বন্ধ করে মাকে উন্নত চিকিৎসার জন্যে তড়িঘড়ি করে চট্রগ্রামে নিয়ে যান তারা। পরদিন (বৃহস্পতিবার) সকালে বাড়িতে এসে দেখেন ঘরের প্রধান দরজার তালা ভাঙ্গা এবং ঘরের সব জিনিস পত্র এলামেলো অবস্থায় পড়ে আছে। পরে তারা দেখেন স্বর্ণালংকারসহ অনেক মূল্যবান জিনিসপত্র নেই। তাদের ১ লক্ষ ৭০ হাজার টাকার মালামাল লুট হয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে।
চাটখিল থানার দ্বায়িত্বরত পুলিশ কর্মকর্তা অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পুলিশ বিষয়টা তদন্ত করে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করবে।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

চাটখিলে  ছাত্রলীগ নেতার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ৩শ নেতাকর্মীদের ঈদ উপহার

চাটখিলে ব্যবসায়ীর ঘরের দরজা ভেঙ্গে স্বর্ণলংকার ও মালামাল লুট

আপডেট: ০৫:৩৬:১৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২

স্টাফ করেসপন্ডেন্টঃ
নোয়াখালীর চাটখিলে ব্যবসায়ী ফজলুল হোসেনের বসত ঘরের দরজার তালা ভেঙ্গে স্বর্নালংকার ও নগট টাকাসহ ঘরের বিভিন্ন মালামাল লুটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার নোয়াখলা ইউনিয়নের সিংবাহুড়া গ্রামে। জানা যায়,ফজলু হোসেন চট্রগ্রামে ব্যবসা করে থাকেন। বাড়িতে থাকতেন তার মা।
এই ঘটনায় তার ছোট ভাই বেসরকারী একটা প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা মাহমুদ হোসেন মামুন বৃহস্পতিবার চাটখিল থানায় চুরির অভিযোগ এনে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, তাদের মা বাড়িতে থাকেন। বুধবার তিনি হঠাৎ অসুস্থ্য হয়ে পড়লে ঘর তালা বন্ধ করে মাকে উন্নত চিকিৎসার জন্যে তড়িঘড়ি করে চট্রগ্রামে নিয়ে যান তারা। পরদিন (বৃহস্পতিবার) সকালে বাড়িতে এসে দেখেন ঘরের প্রধান দরজার তালা ভাঙ্গা এবং ঘরের সব জিনিস পত্র এলামেলো অবস্থায় পড়ে আছে। পরে তারা দেখেন স্বর্ণালংকারসহ অনেক মূল্যবান জিনিসপত্র নেই। তাদের ১ লক্ষ ৭০ হাজার টাকার মালামাল লুট হয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে।
চাটখিল থানার দ্বায়িত্বরত পুলিশ কর্মকর্তা অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পুলিশ বিষয়টা তদন্ত করে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করবে।