Dhaka ০২:১২ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ০৯ জুন ২০২৪

চাটখিলে চেয়ারম্যানের স্বাক্ষর জাল করে এক নারীর ৩ স্বামী দেখিয়ে ৩ সনদ!

  • আপডেট: ০৯:০৩:০৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৪ জুন ২০২২
  • 398

স্টাফ করেসপন্ডেন্টঃ

চাটখিলে চেয়ারম্যানের স্বাক্ষর জাল করে এক নারীকে ভিন্ন ভিন্ন ৩ স্বামীর নাম দেখিয়ে তাকে ৩ টি সনদ দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। আর এই অভিযোগ এনে সাইদুর রহমান (৭০) নামের এক বৃদ্ধর বিরুদ্ধে চাটখিল থানায় প্রতারনার মামলা করেছেন উপজেলার হাটপুকুরিয়া-ঘাটলাবাগ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও জেলা আ,লীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য এস এম বাকী বিল্লাহ।
চেয়ারম্যানের লিখিত অভিযোগ থেকে জানা যায়, তার ইউনিয়নের বক্তারপুর গ্রামের বৃদ্ধ সাইদুর রহমান চেয়ারম্যানের স্বাক্ষর জালিয়াতি করে প্রতারনার মাধ্যমে তার দ্বিতীয় স্ত্রী হাবিবুর নেচা মুন্নীর নামে ৩ স্বামী (যথাক্রমে দুলাল মিয়া, কাজল মিয়া এবং মতিউর রহমান মিন্টু) দেখিয়ে ভিন্ন ভিন্ন ভাবে ৩ টি নাগরিক ও চারিত্রিক সনদপত্র তৈরী করে। পরে বিষয়টি চেয়ারম্যান জানতে পারে এবং তার ভাবমূর্তী নষ্ট হওয়ার আশংকায় সাইদুর রহমানকে বিবাদী করে চাটখিল থানায় মামলা করেন।
এস এম বাকী বিল্লাহ মামলার বিষয়টি স্বীকার করে গনমাধ্যমকে বলেন, অভিযুক্ত সাইদুর রহমানের বিরুদ্ধে প্রতারনায় চাকুরীচ্যুত হওয়াসহ আরো অনেক প্রতারনার অভিযোগ রয়েছে।

চাটখিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা গিয়াস উদ্দিন মামলাটি তদন্ত পর্যায়ে রয়েছে বলে বলেন, প্রাথমিকভাবে সাইদুর রহমানের প্রতারনার প্রমানও পাওয়া গেছে।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

চাটখিলে  ছাত্রলীগ নেতার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ৩শ নেতাকর্মীদের ঈদ উপহার

চাটখিলে চেয়ারম্যানের স্বাক্ষর জাল করে এক নারীর ৩ স্বামী দেখিয়ে ৩ সনদ!

আপডেট: ০৯:০৩:০৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৪ জুন ২০২২

স্টাফ করেসপন্ডেন্টঃ

চাটখিলে চেয়ারম্যানের স্বাক্ষর জাল করে এক নারীকে ভিন্ন ভিন্ন ৩ স্বামীর নাম দেখিয়ে তাকে ৩ টি সনদ দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। আর এই অভিযোগ এনে সাইদুর রহমান (৭০) নামের এক বৃদ্ধর বিরুদ্ধে চাটখিল থানায় প্রতারনার মামলা করেছেন উপজেলার হাটপুকুরিয়া-ঘাটলাবাগ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও জেলা আ,লীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য এস এম বাকী বিল্লাহ।
চেয়ারম্যানের লিখিত অভিযোগ থেকে জানা যায়, তার ইউনিয়নের বক্তারপুর গ্রামের বৃদ্ধ সাইদুর রহমান চেয়ারম্যানের স্বাক্ষর জালিয়াতি করে প্রতারনার মাধ্যমে তার দ্বিতীয় স্ত্রী হাবিবুর নেচা মুন্নীর নামে ৩ স্বামী (যথাক্রমে দুলাল মিয়া, কাজল মিয়া এবং মতিউর রহমান মিন্টু) দেখিয়ে ভিন্ন ভিন্ন ভাবে ৩ টি নাগরিক ও চারিত্রিক সনদপত্র তৈরী করে। পরে বিষয়টি চেয়ারম্যান জানতে পারে এবং তার ভাবমূর্তী নষ্ট হওয়ার আশংকায় সাইদুর রহমানকে বিবাদী করে চাটখিল থানায় মামলা করেন।
এস এম বাকী বিল্লাহ মামলার বিষয়টি স্বীকার করে গনমাধ্যমকে বলেন, অভিযুক্ত সাইদুর রহমানের বিরুদ্ধে প্রতারনায় চাকুরীচ্যুত হওয়াসহ আরো অনেক প্রতারনার অভিযোগ রয়েছে।

চাটখিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা গিয়াস উদ্দিন মামলাটি তদন্ত পর্যায়ে রয়েছে বলে বলেন, প্রাথমিকভাবে সাইদুর রহমানের প্রতারনার প্রমানও পাওয়া গেছে।