Dhaka ০২:২৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ০৯ জুন ২০২৪

চাটখিলে হিন্দুরলাশ পোড়ানো কে কেন্দ্র করে হিন্দু মুসলিম সংঘর্ষ

  • আপডেট: ০৪:৩৫:০৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩ নভেম্বর ২০২২
  • 72

Made with LogoLicious Add Your Logo App

 

চাটখিল প্রতিনিধি :
নোয়াখালী চাটখিল উপজেলার শ্রীপুর গ্রামে হিন্দুর লাশ পোড়ানো কে কেন্দ্র করে হিন্দু মুসলিম সংঘর্ষ হওয়ার খবর পাওয়া গেছে । একাধিক সূত্র থেকে জানা যায় যে, শ্রীপুর গ্রামের কর্মকার বাড়ির যোগেশ লাল কর্মকার গতকাল ( ২ নভেম্ভর) বার্ধক্য জনিত কারণে মারা যায় । তার লাশ পোড়ানো কে কেন্দ্র করে স্থানীয় কিছু উশৃংখল মুসল্লিদের সাথে কর্মকার বাড়ির লোকজনদের সাথে সংঘর্ষ বেঁধে যায় । সংঘর্ষের একপর্যায়ে মুসলিম মোহাম্মদ ইউসুফ (পিতা রফিকুল্লাহ সাং শিবপুর) নামের এক পথচারী নিহত হয় । সংঘর্ষের এক পর্যায়ে খিলপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ও চাটখিল থানা পুলিশের সহযোগিতায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসে। নিহত ব্যক্তির লাশ পুলিশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চাটখিল জেনারেল হাসপাতালে পাঠায়। উক্ত ঘটনায় মৃত ব্যক্তির বাবা বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। এই ঘটনা থেকে কেন্দ্র করে শ্রীপুর এলাকায় বর্তমানে থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।
এখানে উল্লেখ্য যে হিন্দু ব্যক্তির লাশ দাহ করার জন্য যে শ্মশানে নেয়া হয় তার পাশে মহরম শরবত আলী দরবেশ সাহেবের কবরস্থান ও একটি পাঞ্জখানা মসজিদ থাকায় কতিপয় মুসল্লি ও শরবত আলী দরবেশ সাহেবের ছেলেরা লাশ দাহ করতে বাধা দেয়। বাধার এক পর্যায়ে এই সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়। সংঘর্ষে হিন্দু ও এলাকাবাসীদের মধ্যে প্রায় আট জনের মত আহত হয় এবং একজন নিহত হয়
এ ব্যাপারে চাটখিল থানার ওসি সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, পরিস্থিতি এখন স্বাভাবিক আছে ওই ব্যাপারে একটা হত্যা মামলা হয়। তারা মামলা ও পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছেন।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

চাটখিলে  ছাত্রলীগ নেতার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ৩শ নেতাকর্মীদের ঈদ উপহার

চাটখিলে হিন্দুরলাশ পোড়ানো কে কেন্দ্র করে হিন্দু মুসলিম সংঘর্ষ

আপডেট: ০৪:৩৫:০৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩ নভেম্বর ২০২২

 

চাটখিল প্রতিনিধি :
নোয়াখালী চাটখিল উপজেলার শ্রীপুর গ্রামে হিন্দুর লাশ পোড়ানো কে কেন্দ্র করে হিন্দু মুসলিম সংঘর্ষ হওয়ার খবর পাওয়া গেছে । একাধিক সূত্র থেকে জানা যায় যে, শ্রীপুর গ্রামের কর্মকার বাড়ির যোগেশ লাল কর্মকার গতকাল ( ২ নভেম্ভর) বার্ধক্য জনিত কারণে মারা যায় । তার লাশ পোড়ানো কে কেন্দ্র করে স্থানীয় কিছু উশৃংখল মুসল্লিদের সাথে কর্মকার বাড়ির লোকজনদের সাথে সংঘর্ষ বেঁধে যায় । সংঘর্ষের একপর্যায়ে মুসলিম মোহাম্মদ ইউসুফ (পিতা রফিকুল্লাহ সাং শিবপুর) নামের এক পথচারী নিহত হয় । সংঘর্ষের এক পর্যায়ে খিলপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ও চাটখিল থানা পুলিশের সহযোগিতায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসে। নিহত ব্যক্তির লাশ পুলিশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চাটখিল জেনারেল হাসপাতালে পাঠায়। উক্ত ঘটনায় মৃত ব্যক্তির বাবা বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। এই ঘটনা থেকে কেন্দ্র করে শ্রীপুর এলাকায় বর্তমানে থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।
এখানে উল্লেখ্য যে হিন্দু ব্যক্তির লাশ দাহ করার জন্য যে শ্মশানে নেয়া হয় তার পাশে মহরম শরবত আলী দরবেশ সাহেবের কবরস্থান ও একটি পাঞ্জখানা মসজিদ থাকায় কতিপয় মুসল্লি ও শরবত আলী দরবেশ সাহেবের ছেলেরা লাশ দাহ করতে বাধা দেয়। বাধার এক পর্যায়ে এই সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়। সংঘর্ষে হিন্দু ও এলাকাবাসীদের মধ্যে প্রায় আট জনের মত আহত হয় এবং একজন নিহত হয়
এ ব্যাপারে চাটখিল থানার ওসি সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, পরিস্থিতি এখন স্বাভাবিক আছে ওই ব্যাপারে একটা হত্যা মামলা হয়। তারা মামলা ও পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছেন।