Dhaka ০২:১৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ০৯ জুন ২০২৪

চাটখিলে ভূমি সংক্রান্ত জটিলতার সমাধানে এসিল্যান্ড  উজ্জলের ভুমিকা আর আন্তরিকতা ছিল প্রশংসনীয়

  • আপডেট: ০২:৫৩:৪৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ৬ নভেম্বর ২০২৩
  • 1

প্রিয় নোয়াখালী ডেস্কঃ

বদলিজনিত কারণে চাটখিল উপজেলার এসিল্যান্ড (সহকারী কমিশনার, ভূমি) উজ্জল  রায়   বিদায় নিচ্ছেন চাটখিল উপজেলা থেকে। তার নতুন কর্মস্থল পার্বত্য চট্টগ্রামের বান্দরবান জেলার নাইট্যাংছড়িতে।

তার বদলির খবর আসার পর থেকে অনেকে ছুটে আসছেন তার সাথে দেখা করতে।নিয়ে আসছেন ফুল। আর তাদের মুখে ছিল সরকারি কর্মকর্তা উজ্জ্বল রায়ের ভূয়ষি প্রশংসা।

চাটখিল পৌরসভার কাউন্সিলর ও চাটখিল দলিল লেখক সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক সালে আহমেদ সুমন বললেন, ভূমি সংক্রান্ত একটি বিশেষ জটিল বিষয়ে উপজেলাবাসি যখন নানা হয়রানি শিকার হতেন এখানে উজ্জ্বল রায় আন্তরিকতা দিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়াতেন। সমস্যার সমাধানে তিনি ছিলেন অনন্য।

কাউন্সিলর সুমন প্রশাসনে এমন কর্মকর্তা বিরল বলে উল্লেখ করেছেন।
নোয়াখোলা ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার ও দলিল লেখক ইমাম হাসান মুরাদ বলেন, উজ্জ্বল রায় কে চাটখিলের মানুষ অনেকদিন থেকে মনে রাখবে।

সাংবাদিক ও দলিল লেখক ইয়াসিন চৌধুরীর ভাষায় চাটখিলে ভূমি সংক্রান্ত জটিলতার সমাধানে এসিল্যান্ড  উজ্জলের ভুমিকা আর আন্তরিকতা ছিল প্রশংসনীয়।

৩৬ তম বিসিএস ব্যাচের কর্মকর্তা উজ্জ্বল রায় চাটখিল উপজেলায় তার কর্মজীবনের এই ক্ষণিক সময়ে সকলের সহযোগিতায় মুগ্ধ হয়েছেন বলে জানান। তিনি আরো বলেন, চাকরির পরবর্তী দিনগুলি চাটখিলে ভালো স্মৃতি গুলো নিয়ে এগিয়ে যেতে চান তিনি।

প্রসঙ্গত যে, উজ্জ্বল  রায়ের সোমবার ছিল চাটখিলে শেষ কর্ম দিবস। আর এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত নতুন কোন এসিল্যান্ডকে চাটখিলে পদায়ন করা হয়েছে বলে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

চাটখিলে  ছাত্রলীগ নেতার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ৩শ নেতাকর্মীদের ঈদ উপহার

চাটখিলে ভূমি সংক্রান্ত জটিলতার সমাধানে এসিল্যান্ড  উজ্জলের ভুমিকা আর আন্তরিকতা ছিল প্রশংসনীয়

আপডেট: ০২:৫৩:৪৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ৬ নভেম্বর ২০২৩

প্রিয় নোয়াখালী ডেস্কঃ

বদলিজনিত কারণে চাটখিল উপজেলার এসিল্যান্ড (সহকারী কমিশনার, ভূমি) উজ্জল  রায়   বিদায় নিচ্ছেন চাটখিল উপজেলা থেকে। তার নতুন কর্মস্থল পার্বত্য চট্টগ্রামের বান্দরবান জেলার নাইট্যাংছড়িতে।

তার বদলির খবর আসার পর থেকে অনেকে ছুটে আসছেন তার সাথে দেখা করতে।নিয়ে আসছেন ফুল। আর তাদের মুখে ছিল সরকারি কর্মকর্তা উজ্জ্বল রায়ের ভূয়ষি প্রশংসা।

চাটখিল পৌরসভার কাউন্সিলর ও চাটখিল দলিল লেখক সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক সালে আহমেদ সুমন বললেন, ভূমি সংক্রান্ত একটি বিশেষ জটিল বিষয়ে উপজেলাবাসি যখন নানা হয়রানি শিকার হতেন এখানে উজ্জ্বল রায় আন্তরিকতা দিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়াতেন। সমস্যার সমাধানে তিনি ছিলেন অনন্য।

কাউন্সিলর সুমন প্রশাসনে এমন কর্মকর্তা বিরল বলে উল্লেখ করেছেন।
নোয়াখোলা ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার ও দলিল লেখক ইমাম হাসান মুরাদ বলেন, উজ্জ্বল রায় কে চাটখিলের মানুষ অনেকদিন থেকে মনে রাখবে।

সাংবাদিক ও দলিল লেখক ইয়াসিন চৌধুরীর ভাষায় চাটখিলে ভূমি সংক্রান্ত জটিলতার সমাধানে এসিল্যান্ড  উজ্জলের ভুমিকা আর আন্তরিকতা ছিল প্রশংসনীয়।

৩৬ তম বিসিএস ব্যাচের কর্মকর্তা উজ্জ্বল রায় চাটখিল উপজেলায় তার কর্মজীবনের এই ক্ষণিক সময়ে সকলের সহযোগিতায় মুগ্ধ হয়েছেন বলে জানান। তিনি আরো বলেন, চাকরির পরবর্তী দিনগুলি চাটখিলে ভালো স্মৃতি গুলো নিয়ে এগিয়ে যেতে চান তিনি।

প্রসঙ্গত যে, উজ্জ্বল  রায়ের সোমবার ছিল চাটখিলে শেষ কর্ম দিবস। আর এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত নতুন কোন এসিল্যান্ডকে চাটখিলে পদায়ন করা হয়েছে বলে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।