Dhaka ০২:৫১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ০৯ জুন ২০২৪

চাটখিলে খুনের প্রত্যক্ষদর্শীকে আসামি করার অভিযোগ

  • আপডেট: ০১:৫৬:২০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৪ জানুয়ারী ২০২৩
  • 0

চাটখিল প্রতিনিধিঃ

নোয়াখালীর চাটখিলে বিএনপি নেতাকে খুন করার সময় দেখে ফেলা এবং সেই সময় খুনিদের হাতে আহত হওয়া তারই আপন চাচাত ভাই ইব্রাহিম খলিলকেই তার চাচাত ভাইয়ের খুনের সেই মামলায় আসামি করার গুরুতর অভিযোগ পাওয়া গেছে।
অনুসন্ধান করে জানা যায় যে,  ২০২২ সালের ১৬ ডিসেম্বর  রাতে স্থানীয়  বিএনপি নেতা এবং উপজেলার খিলপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী সোহেল চৌধুরী (পিতা শরিফ উল্ল্যাহ) নিজ বাসায় খুন হন।এ সময় তাকে খুনিদের হাত থেকে বাঁচাতে গেলে তার আপন চাচাত ভাই ইব্রাহিম খলিল ( খুনিদের হাতে মারাত্মক আহত  হয়।

পরে আদালতে মামলাটি গেলে ইব্রাহিম খলিল সাক্ষী হিসাবে এই মামলার সাক্ষ্য দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয় কিন্তু এই মামলার মূল খুনি শিপন গং তথা (প্রধান মন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারীর ভাগিনা )ইব্রাহিম খলিলকে মামলায় সাক্ষী দিলে তাকে এবং তার ছেলেকে হত্যা করবে বলে প্রকাশ্যে হুমকি দেয়।

আর এতে ইব্রাহিম খলিল ভীত সন্ত্রস্ত হয়ে মামলার সাক্ষী হতে অপারগতা প্রকাশ করে এবং সে আত্মগোপনে চলে যায়। আর এতে  ক্ষুব্ধ হয়ে  মামলার বাদী তার চাচা(খুন হওয়া সোহেল চৌধুরীর বাবা) ইব্রাহিম খলিলকে এই মামলায় খুনি হিসেবে চিহ্নিত করে আসামি করে।

এ ব্যাপারে মামলার বাদি শরীফ উল্ল্যা কে এর সত্যতা জানার জন্য বারবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তিনি সংবাদ মাধ্যমের সাথে কোন কথা বলতে রাজি হননি।

চাটখিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা গিয়াস উদ্দিন বলেছেন, মামলার বাদী নিজেই তার আপন ভাতিজা কে তার ছেলে হত্যার  মামলার আসামি করেছেন।এর সত্য মিথ্যা প্রমাণ করবে আদালত।
তিনি এ ব্যাপারে পুলিশের কোন করণীয় নেই বলেও দাবি করেন।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

চাটখিলে  ছাত্রলীগ নেতার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ৩শ নেতাকর্মীদের ঈদ উপহার

চাটখিলে খুনের প্রত্যক্ষদর্শীকে আসামি করার অভিযোগ

আপডেট: ০১:৫৬:২০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৪ জানুয়ারী ২০২৩

চাটখিল প্রতিনিধিঃ

নোয়াখালীর চাটখিলে বিএনপি নেতাকে খুন করার সময় দেখে ফেলা এবং সেই সময় খুনিদের হাতে আহত হওয়া তারই আপন চাচাত ভাই ইব্রাহিম খলিলকেই তার চাচাত ভাইয়ের খুনের সেই মামলায় আসামি করার গুরুতর অভিযোগ পাওয়া গেছে।
অনুসন্ধান করে জানা যায় যে,  ২০২২ সালের ১৬ ডিসেম্বর  রাতে স্থানীয়  বিএনপি নেতা এবং উপজেলার খিলপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী সোহেল চৌধুরী (পিতা শরিফ উল্ল্যাহ) নিজ বাসায় খুন হন।এ সময় তাকে খুনিদের হাত থেকে বাঁচাতে গেলে তার আপন চাচাত ভাই ইব্রাহিম খলিল ( খুনিদের হাতে মারাত্মক আহত  হয়।

পরে আদালতে মামলাটি গেলে ইব্রাহিম খলিল সাক্ষী হিসাবে এই মামলার সাক্ষ্য দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয় কিন্তু এই মামলার মূল খুনি শিপন গং তথা (প্রধান মন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারীর ভাগিনা )ইব্রাহিম খলিলকে মামলায় সাক্ষী দিলে তাকে এবং তার ছেলেকে হত্যা করবে বলে প্রকাশ্যে হুমকি দেয়।

আর এতে ইব্রাহিম খলিল ভীত সন্ত্রস্ত হয়ে মামলার সাক্ষী হতে অপারগতা প্রকাশ করে এবং সে আত্মগোপনে চলে যায়। আর এতে  ক্ষুব্ধ হয়ে  মামলার বাদী তার চাচা(খুন হওয়া সোহেল চৌধুরীর বাবা) ইব্রাহিম খলিলকে এই মামলায় খুনি হিসেবে চিহ্নিত করে আসামি করে।

এ ব্যাপারে মামলার বাদি শরীফ উল্ল্যা কে এর সত্যতা জানার জন্য বারবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তিনি সংবাদ মাধ্যমের সাথে কোন কথা বলতে রাজি হননি।

চাটখিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা গিয়াস উদ্দিন বলেছেন, মামলার বাদী নিজেই তার আপন ভাতিজা কে তার ছেলে হত্যার  মামলার আসামি করেছেন।এর সত্য মিথ্যা প্রমাণ করবে আদালত।
তিনি এ ব্যাপারে পুলিশের কোন করণীয় নেই বলেও দাবি করেন।